সংবাদ শিরোনাম

খালেদা জিয়ার সিটি স্ক্যানের রিপোর্ট নিয়ে যা বললেন চিকিৎসক২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিলেন কাদের মির্জাটাঙ্গাইলে ভন্ড পুরুষ কবিরাজ নারী সেজে যুবককে বিয়ে! অতঃপর…ব্যক্তিগত কাজে সরকারি গাড়ি নিয়ে স্বাস্থ্য কর্মকর্তার ঢাকা ভ্রমণ!শেরপুরের সেই শিশু রোকনের পরিবারের পাশে ইউএনও!কক্সবাজারে অস্ত্রসহ ডাকাতি মামলার আসামি গ্রেফতারকক্সবাজারে অনুপ্রবেশকারীর পক্ষ না নেয়ায়, আ’লীগ সভাপতিকে অব্যাহতি!শাহজাদপুরে ট্যাংকলরি সিএনজি’র মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ১রমজান মাসে আলেমদের হয়রানি মেনে নেয়া যায় না: নুরুল ইসলাম জিহাদীখালেদা জিয়াকে পাকিস্তান-জাপান দূতের চিঠি

  • আজ ৩রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কেন বাহুবলিকে খুন করেছিল কাটাপ্পা? অপেক্ষার পালা শেষ, এবার জানুন কারণ!

৯:২০ অপরাহ্ন | সোমবার, মে ১, ২০১৭ Breaking News, বিনোদন, স্পট লাইট

বিনোদন ডেস্ক: অবশেষে অবসান ঘটলো সব জল্পনা-কল্পনার। এর আগেই ধারনা করা হচ্ছিলো মুক্তির পরও চমক অব্যাহত থাকবে ‘বাহুবলী টু’ ছবিটিকে ঘিরে। আর হলো ঠিক তাই। প্রথম দিনেই বক্স অফিস কাঁপিয়ে দিলো এসএস রাজামৌলি পরিচালিত ‘বাহুবলী টু’।

শুক্রবার (২৮ এপ্রিল) ভারত এবং ভারতের বাইরে প্রায় ৯ হাজার প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় সিনেমাটি। আর এরই মধ্যে না-কি সালমান খানের ‘সুলতান’, আমির খানের ‘দঙ্গল’ ও শাহরুখ খানের ‘রইস’কে পেছনে ফেলে দিয়ে নতুন রেকর্ড তৈরি করেছে ‘বাহুবলী টু’। জানা যায়, শুধু ভারতে প্রথম দিনে ১০০ কোটি রুপির উপরে আয় করেছে বাহুবলি-টু।

একের পর এক রেকর্ড ভাঙছে ছবিটি। মাত্র দুই দিনে প্রায় ৩০০ কোটির ব্যবসা করে ফেলেছে ‘বাহুবলি ২’। এদিকে অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড ও নর্থ অামেরিকার দেশগুলিতেও বাহুবলি ক্রমশ জনপ্রিয় হচ্ছে। গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেল, মার্কিন বক্স অফিস কালেকশনে অন্যান্য হলিউড ছবিগুলোর মধ্যে তৃতীয় অবস্থান পেয়েছে এস রাজামৌলির বিখ্যাত সিনেমাটি।

বলিউড অভিনেতাদের এয়ারলিফ্ট, রুস্তম, সুলতান, দঙ্গল… সবাই যা পারেনি, সেটাই করে দেখিয়েছে ‘বাহুবলি ২’। সব্বাইকে টপকে মার্কিন বক্স অফিসেরও শীর্ষে এখন ‘বাহুবলি’। গাল্ফেও সর্বকালের সেরা ওপেনারের রেকর্ড এখন ‘বাহুবলি ২’-এর মাথায়।

মুক্তির প্রথমদিনে একশো কোটি কালেকশন করে তাক লাগিয়েছিল সিনেমাটি। এবার তিনশো কোটির ক্লাবও পার করলো। মাত্র দুদিনে দেশে ছবিটির কালেকশন ২৮৫ কোটি। গতকালের হিসেব সামনে এলে হয়তো দেখা যাবে ৪০০ কোটির ক্লাব ছুঁয়েছে রাজামৌলি পরিচালিত সিনেমাটি। বিশ্বজুড়ে প্রায় ১০.১ মিলিওন মার্কিন ডলার আয় করেছে ছবিটি।

সিনেমাটি এমনিতেই দর্শকদের প্রশংসা কুড়িয়েছে। সিনেমা নির্মাতা থেকে কলাকুশীলব, প্রায় সকলেই বাহুবলি ২ নিয়ে উচ্ছ্বসিত। টুইট করে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রজনীকান্তের মতো অভিনেতা। তিনি বার্তায় লিখেছেন, ‘ভারতীয় সিনেমার গর্ব ‘বাহুবলি ২’। রাজামৌলি ও তার টিমকে আমার স্যালুট।’

এদিকে দর্শকদের কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন রাজামৌলি। তিনি টুইটারে লিখেছেন, ‘বাহুবলি ২’র মতো বড় সিনেমা মুক্তি পাওয়ার ক্ষেত্রে অনেক প্রতিবন্ধকতা থাকে। কিন্তু দর্শকদের ভালোবাসা আর আর্শীবাদ সে সব বাধা অতিক্রম করতে সাহায্য করেছে। বিগত ৫ বছর ধরে পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ।’

৬৫০ কোটি রুপির বেশি অর্থ আয় করেছিল দক্ষিণের এই সিনেমার প্রথম কিস্তি। এখন দেখার ব্যাপার হলো, ‘বাহুবলি: দ্য কনক্লুশন’ সেই রেকর্ড ভাঙতে পারে কি না। ‘বাহুবলি ২’ ছবির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন প্রভাস, তামান্না ভাটিয়া, রানা দাগুবতি, রামাইয়া কৃষ্ণান, সত্যরাজ, আনুশকা শেঠিসহ আরো অনেকে।

ফিল্ম রিভিউ: কেন বাহুবলিকে খুন করেছিল কাটাপ্পা? অপেক্ষার পালা শেষ, এবার জানুন কারণ!

একটি দুর্বার আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষার পালা শেষ হলো এবার। জানা গেল কেন অমরেন্দ্র বাহুবলিকে খুন করেছিল কাটাপ্পা।

“বাহুবলি টু: দ্য কনক্লুশন”-এ দুর্দান্ত ভিএফএক্স সিনেমাটির গল্প আর চরিত্রগুলোকে করে তুলেছে আরও বেশি প্রাণবন্ত। প্রতিটি দৃশ্যে দর্শক যেন হারিয়ে যেতে বাধ্য। “বাহুবলি টু”-র শুরুর দিকে বাহুবলির বীরত্ব আর প্রজাদের প্রতি ভালোবাসা দেখানোর পর বেশ কিছুটা সময় ছিল হাস্য-কৌতুকে ভরপুর। কিন্তু, প্রথম আধঘণ্টা বাদ দিলে বাকি সময় ছিল রাজপরিবারের রাজনীতি, যুদ্ধ, ষড়যন্ত্র আর দুই ক্ষমতাধর নারীর মধ্যকার বিবাদ নিয়ে টানটান উত্তেজনা।

বাহুবলি রাজা হিসেবে শপথ নেওয়ার আগে রাজমাতা শিবগামী দেবীর কথায় রাজ্য ভ্রমণে বের হোন। আর ঘুরতে ঘুরতে ঘটনাক্রমে দেখা হয় পাশের রাজ্যের রাজকুমারী দেবসেনার সঙ্গে। দেবসেনার বীরত্ব আর সৌন্দর্যে বিমোহিত হয়ে পড়েন অমরেন্দ্র বাহুবলি। তাঁর প্রেম পাওয়ার জন্য বোকার অভিনয় করে সেই রাজ্যেই দেবসেনার আশ্রয়ে থেকে যান বাহুবলি। আর তাঁদের মেলানোর জন্য কাটাপ্পার ভূমিকা ছিল বেশ কৌতুকপূর্ণ। বাহুবলি যখন প্রেমে মশগুল তখন রাজমহলে রাজা হতে না পারার কষ্ট নিয়ে বল্লাল দেব বুনতে থাকেন ষড়যন্ত্রের জাল।

বাহুবলিকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার সময় দেবসেনার সন্দেহ হতে থাকে যে সে ঠিক বোকা একজন লোক নন, সে একজন যোদ্ধা। এর প্রমাণ শেষ পর্যন্ত দেবসেনা পেয়ে যান যখন তাঁর রাজ্য আক্রমণ করে বসে পিন্ডারিরা। বাহুবলির যুদ্ধপটুতা সে যাত্রায় রক্ষা করে কুন্তাল রাজ্যকে। বাহুবলি কুন্তাল রাজ্যের মানুষের কাছে মহান বনে যান। কিন্তু বল্লাল দেবের ষড়যন্ত্রে শিবগামীর আদেশে রাজকুমারী দেবসেনাকে বন্দি করে মহেসমতী নিয়ে যাবার আদেশ পান বাহুবলি। কুন্তাল রাজ্যের রাজা-রানীর কাছ থেকে রাজকুমারীকে বিয়ে করার অনুমতি নিয়ে এবং তাঁর সম্মান ও জীবনরক্ষার পণ করে দেবসেনাকে সঙ্গে নিয়েই বাহুবলি ফিরেন মহেসমতীতে।

বল্লাল দেবের ষড়যন্ত্রে বাহুবলির বদলে বল্লাল দেবকে রাজা এবং বাহুবলিকে প্রধান সেনাপতি ঘোষণা করেন শিবগামী। রাজমাতার এই আদেশ খুশি মনে মেনে নেন বাহুবলি। দেবসেনাকে বিয়ে করে খুশি মনেই জীবন পরিচালনা করতে থাকেন তিনি। কিন্তু প্রজাদের মধ্যে বাহুবলির জনপ্রিয়তা দেখে হিংসায় ক্ষোভ আরও বাড়তে থাকে বল্লাল দেবের। বাড়তে থাকে তাঁর ও তাঁর পিতার ষড়যন্ত্রের প্রকোপ। এই হিংসা থেকেই প্রথমে বাহুবলিকে রাজমহল থেকে বহিষ্কার এবং পরে তাঁকে হত্যার ষড়যন্ত্র করে বল্লাল দেব।

বাহুবলির মতো বীরকে সাধারণ কাউকে দিয়ে হত্যা করা সম্ভব নয় এটা বুঝতে পেরে বল্লাল দেব রাজমাতা শিবগামী দেবীর কাছে মিথ্যা ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে বুঝিয়ে দেন তাঁকে হত্যার চেষ্টা করেছে বাহুবলি। আর এতেই ক্ষিপ্ত হয়ে রাজমাতা কাটাপ্পাকে হাতে বাহুবলিকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। পরিকল্পনা মতো রাজ আদেশে মহেশমতী রাজ্যের গোলাম কাটাপ্পা হত্যা করে অমরেন্দ্র বাহুবলিকে।

কাটাপ্পার কাছে নিজের সন্তান বল্লাল দেবের মিথ্যে ষড়যন্ত্রের বিবরণ জানতে পেরে শিবগামী অমরেন্দ্র বাহুবলির সদ্যজাত সন্তান মহেন্দ্র বাহুবলিকে মহারাজা ঘোষণা দেন। কিন্তু বল্লাল দেব মহেন্দ্র বাহুবলিকেও হত্যার চেষ্টা করেন। নিজের জীবন দিয়ে শিবগামী কিভাবে মহেন্দ্র বাহুবলিকে বাঁচান এবং মহেন্দ্র বাহুবলির বেড়ে ওঠা ছিলো “বাহুবলি: দ্য বিগিনিং”-এ।

কাটাপ্পার কাছে সব ঘটনা জেনে মায়ের অপমান এবং পিতৃহত্যার প্রতিশোধ নিতে মহেসমতীতে ফিরে আসেন মহেন্দ্র বাহুবলি। তাঁর সঙ্গে যোগ দেন রাজপরিবারের গোলাম কাটাপ্পা। কারণ, রাজমাতা শিবগামীর ঘোষণা অনুযায়ী মহেন্দ্র বাহুবলিই মহেসমতীর বৈধ রাজা। তাঁদের সঙ্গে যোগ দেন বল্লাল দেবের ক্রোধে ধ্বংস হয়ে যাওয়া কুন্দল রাজ্যের জনগণ, মহেসমতীর সাধারণ মানুষ আর কাটাপ্পার অধীনস্থ অল্পকিছু সংখ্যক সৈনিক। যুদ্ধকৌশলে জিতে যায় মহেন্দ্র বাহুবলি। এতে অবসান হয় বল্লাল দেবের আর মহেসমতী পায় তাদের নতুন মহারাজ মহেন্দ্র বাহুবলি।