• আজ ৪ঠা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সালথায় আ’লীগের দু-পক্ষের সংঘর্ষে নিহতের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের ,গ্রেপ্তার-৫

১০:২৪ অপরাহ্ন | সোমবার, মে ১, ২০১৭ খুলনা, দেশের খবর

ff


হারুন-অর-রশীদ,ফরিদপুর প্রতিনিধি

ফরিদপুরের সালথা উপজেলার আটঘর ইউনিয়নের গোয়ালপাড়া গ্রামে আ’লীগের দু-পক্ষের সংঘর্ষে গতকাল রবিবার জিয়া শেখ (৩০) নামের যুবক নিহত হয়। এছাড়াও এ ঘটনায় অর্ধশতাধিক ব্যাক্তি আহত ও বাড়িঘর ভাংচুর, লুটপাট হবার পর ঐ দিন দিবাগত রাতে নিহতের পিতা শাহাদত শেখ বাদি হয়ে স্থানীয় সালথা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।

এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ও গ্রাম্য দলপক্ষ নিয়ে বিরোধের কারণে দীর্ঘ দিন ধরে আটঘর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান শহিদুল হাসান খাঁন সোহাগকে হত্যা করার চেষ্টা চলছিলো। এরই জের ধরে গত রোববার ভোরে মানুষ যখন কেবলই ফজরের নামাজ আদায় করে প্রাত্যাহিক কাজ-কর্মে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন ঠিক তখনই বিরোধী পক্ষের প্রায় এক হাজার লোকজন দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র রামদা, ছেনদা, ভেলা, ঢাল , কাতরা ,সড়কি, বল্লম ইত্যাদি মারাত্মক অস্ত্রে-শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে অতর্কিতে চেয়ারম্যানের বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় চেয়ারম্যান সোহাগ খাঁন ঘরের ভেতর ঢুকে আত্মরক্ষা করতে পারলেও জিয়া বাঁচতে পারেনি।

জানা যায়, জিয়াও সে সময় চেয়ারম্যানের ঘরের বারান্দার একটি কুঠরিতে পালাতে গেলে বাইরে থাকা আক্রমণকারি জানালাদিয়ে বল্লমছুঁড়ে আর সে বল্লমের আঘাতেই ঘটনাস্থলেই মারাত্মক আঘাত প্রাপ্ত হয় জিয়া। পরে হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেয়া হলে কর্তব্যরত ডা: তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন এবং রীতিমত সুরতহাল করার পর লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হলে গ্রামের নিজ বাড়িতে এনে দাফন করা হয়।

এ ঘটনার পর উক্ত ইউনিয়নের পুটিয়া এলাকার চিহ্নিত হামলাকারি ১ নং আসামী খুুশবু মোল্যা (৪৮) পিং-মৃত নাজিম উদ্দীন, ২ নং আসামী হারুন মাতুব্বর (৪০),৩ নং আসামী ফিরোজ খান (৪৫) পিং-মৃত সুলতান খাঁনসহ ৫৫ জন ও অঞ্জাতনামা ৩/৪ শ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ দন্ডবিধির ১৪৩/১৪৭/১৪৮/১৪৯/১৫৩/৩২৩/৩২৪/৩২৫/৩২৬/৩০৭/৩০২/৪২৭/৩৭৯/১১৪/৫০৬ ধারা মোতাবেক মারাত্মক অপরাধ সংঘনের দায়ে মামলাটি এজাহার ভুক্ত করেছেন। মামলা নং-১৮, তাং-৩০.০৪.২০১৭ইং। উল্লেখ্য উপজেলার আটঘর ইউনিয়নের পুটিয়া এলাকায় এ ধরনের  অপরাধ সংঘটনের দায়ে উল্লেখিতদেরকে আসামী করে আরো একটি এজাহার দায়ের করা হয়েছিলো যার সালথা থানার মামলা নং-১৫ ও তাং-২৬.০৪.২০১৭ ইং।‎

এদিকে পুলিশ ইতিমধ্যে ফরিদপুরের কোতয়ালী থানা, বোয়ালমারি থানা ও সালথা থানার বিভিন্ন জায়গা হতে এজাহারভুক্ত শায়েক আহমেদ,পিং-মো: কবীর শেখ গ্রাম:রনকাইল,মজনু শেখ পিং: তারা শেখ গ্রাম: কাইশনাবাজ , সজীব আহমেদ পিং: আদেল মাতব্বর গ্রাম: গোয়ালপাড়া , মো: আকবর মোল্যা পিং: মৃত রোকন মোল্যা গ্রাম:রামখন্ড ও আবুল খায়ের মোল্যা পিং: ওয়াজেদ মোল্যা গ্রাম: ময়েনদিয়া, বোয়ালমারি দেরকে গ্রেপ্তার করেছেন।