• আজ রবিবার। গ্রীষ্মকাল, ৫ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ১৮ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। রাত ১১:২৪মিঃ

বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘজীবী ব্যক্তি ১৪৬ বছরের ‘মে গোতা’ মারা গেছেন

৪:২৪ পূর্বাহ্ন | মঙ্গলবার, মে ২, ২০১৭ স্পট লাইট

ডেস্কঃ  ইন্দোনেশিয়ায় বসবাসকারী বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘজীবী ব্যক্তি সডিমেদজো মারা গেছেন।  তিনি ‘মে গোতা’ নামেই বেশি পরিচিত।  গত রোববার দেশটির মধ্য জাভার একটি গ্রামে মৃত্যুবরণ করেন তিনি।  মৃত্যুর সময় তার বয়স হয়েছিল ১৪৬।

জন্মসংক্রান্ত নথিপত্র অনুযায়ী,  সডিমেদজো নামের ওই ব্যক্তি ১৮৭০ সালের ডিসেম্বরে জন্মগ্রহণ করেন।  ইন্দোনেশিয়া ১৯০০ সাল থেকে জন্মনিবন্ধন শুরু করে।  দেশটিতে এর আগে জন্ম নেওয়া ব্যক্তিদের জন্ম তারিখে অনেক ভুল রয়ে যায়।

কিন্তু এরপরও কর্মকর্তারা বলেছেন,  সডিমেদজোর সাথে কথা বলে এবং জন্ম তারিখের সাপেক্ষে তিনি যেসব কাগজপত্র এবং প্রমাণ জমা  দিয়েছেন তা যাচাই করে তারা নিশ্চিত হয়েছেন।

শারীরিক সমস্যার কারণে গত ১২ই এপ্রিল তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়।  কিন্তু তিনি সেখানে থাকতে চাননি।  বাড়িতে ফিরিয়ে আনার কয়েক দিন পর  তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন বলে জানিয়েছেন তার একজন নাতী।

তার নাতি সুরিয়ান্তো বলেন ‘হাসপাতাল থেকে ফিরে আসার পর থেকেই নানা দুই চামুচ জাউ ( তরল খাবার ) ও সামান্য পরিমান পানি পান করত।  সেটাও মাত্র দুয়েকদিন।  এরপর মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি খানা-পিনা থেকে নিজেকে বিরত রেখেছিলেন।’

গত বছর সডিমেদজো একটি সংবাদ মাধ্যমকে সাক্ষাৎকার দিয়েছিলেন।  সেখানে তাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল,  তার এই দীর্ঘ জীবনের গোপন চাবিকাঠি কী?  জবাবে তিনি জানিয়েছিলেন, একটি হচ্ছে ধৈর্য।  আর অন্যটি হচ্ছে ভালবাসা।  যারা আমার আশেপাশে রয়েছে, আমাকে দেখাশোনা করছে তাদের ভালবাসা।

সডিমেদজো ছিলেন একজন চেইন স্মোকার।  সডিমেদজোর মৃত্যুর আগেই তার চার স্ত্রী ও ৩ সন্তান মারা গিয়েছিলো।

আত্মীয়রা জানাচ্ছেন,  তার কবরের ফলকটি দীর্ঘদিন ধরে বাড়ির দরজার পাশে পড়ে ছিল।  সোমবার তার কবর হয়ে যাওয়ার পর ফলকটি সেখানে লাগিয়ে দেয়া হয়