• আজ শুক্রবার। গ্রীষ্মকাল, ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ২৩শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। দুপুর ১:৫৫মিঃ

৪ বলে ৯২ রান: দুই ক্লাবকে আজীবনের জন্য নিষিদ্ধ করলো বিসিবি

⏱ | মঙ্গলবার, মে ২, ২০১৭ 📁 খেলা, স্পট লাইট

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক- ঢাকা দ্বিতীয় বিভাগ ক্রিকেট লিগে ৪ বলে ৯২ রান দেয়ার পর চারদিকে আলোচনা ঝড় বাইয়ে যায়। এরপর বিসিবি ঘটনাটির তদন্ত করে জড়িতদের শাস্তির আশ্বাস দেয়। কেবল দুই খেলোয়াড়ই নয়, যে দুই ক্লাবের ম্যাচ চলাকালীন এমন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে, সেই দুই ক্লাব লালমাটিয়া ও ফেয়ার ফাইটার্সকে আজীবন নিষিদ্ধ করেছে বিসিবি।

image-30837-1493716018পুরো ঘটনা তদন্ত করে বোর্ড সভাপতির কাছে রিপোর্ট জমা দেন বিসিবি পরিচালক ও বোর্ডের বিশেষ তদন্ত কমিটির অন্যতম সদস্য জালাল ইউনুস। আজ তদন্ত শেষে ১০ বছরের জন্য ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ হলেন লালমাটিয়া ক্রিকেট ক্লাবের ওপেনিং বোলার সুজন মাহমুদ এবং ফেয়ার ফাইটার্স স্পোর্টিং ক্লাবের তাসনিম হাসান।

সুজন ৪ বলে ইচ্ছা করে ৯২ রান দেন। তার দুইদিন আগে তাসনিম ১.১ ওভারে ৬৪ রান দেন।

৪ বলে ৯২ রান তোলার ঘটনা ঘটে ১২ এপ্রিল। ‘বাজে আম্পায়ারিং’য়ের প্রতিবাদে লালমাটিয়া ক্রিকেট ক্লাবের ওপেনিং বোলার সুজন মাহমুদ ইচ্ছা করে বাজে বলে করেন। ২০টি ডেলিভারি দিয়ে চারটি বৈধ বল করেন তিনি। প্রথম ওভারের ওই ২০ ডেলিভারিতেই প্রতিপক্ষ ম্যাচ জিতে নেয়। ইনিংস শেষ হয় ০.৪ ওভারে!

লালমাটিয়া সেদিন আগে ব্যাট করে ১৪ ওভারে ৮৮ রানে অলআউট হয়। দলটির অভিযোগ, টস করার সময় তাদের অধিনায়ককে কয়েন দেখানো হয়নি। এমনকি তারা ব্যাট করার সময় ‘ইচ্ছামত সিদ্ধান্ত’ দেন দুই আম্পায়ার। পরে ফিল্ডিং করতে নেমে প্রথম ওভারে বিরল এই প্রতিবাদ জানায় দলটি।

শেখ সোহেল বলেন, ‘সংশ্লিষ্টরা বিশ্বদরবারে বাংলাদেশকে হেয় করতে পরিকল্পনা করে এই কাণ্ড ঘটায়।’

অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় লালমাটিয়া ক্রিকেট ক্লাব এবং ফিয়ার ফাইটাসকে আজীবন বহিষ্কার করা হয়েছে। পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন দুই দলের কোচ ম্যানেজার এবং অধিনায়ক। বোলারদের না থামানোর কারণে এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে না পারার কারণে ম্যাচের আম্পায়ারদের ৬ মাস নিষিদ্ধ করা হয়েছে।