নিজের প্রাণের বিনিময়ে শিশু সন্তানকে বাচাঁলেন এক মা

❏ মঙ্গলবার, মে ২৩, ২০১৭ দেশের খবর, সিলেট

মতিউর রহমান মুন্না, হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জের বাহুবলে যাত্রীবাহি বাস উল্টে মা নিহত ও অন্ততঃ ৩০ জন আহত হয়েছেন। বাসের ভিতরে মৃত্যুর দোয়ারে থেকে ৩ বছরের শিশু সন্তানকে বাচিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেল মা। এতে তিনি প্রমান করলেন মা শুধু মা’ই মায়ের কোন তুলনা হয়না।

সোমবার বিকেলে দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের উপজেলার লস্করপুর নামক স্থানে এ দুর্ঘটনাটি ঘটে। স্থানীয় উদ্ধারকারী উপজেলার কাইথপাড়া গ্রামের আব্দুস সহিদ জানান, ফায়ারকর্মীরা ঘটনাস্থলে আসার আগে নিহত মহিলাটি জীবিত থাকাকালীন সময়ে মৃত্যুর দোয়ারে থেকে নিজের জীবনের আশা বাদ দিয়ে তার তিন বছরের শিশু সন্তানটিকে বাঁচানোর জন্য আকুতি জানায়।

পরে তিনি নিজেই এক হাত দিয়ে গাড়ীর কাঁচ ভাঙ্গা জানালা দিয়ে সন্তানকে টেলে দেন আর শিশুটি বাবা-বাবা চিৎকার করে সম্পূর্ণরুপে অক্ষত অবস্থায় গাড়ীর ভিতর থেকে বাহিরে চলে আসে। কিন্তু দীর্ঘ এক ঘন্টা পরে ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধার কর্মীরা শিশুর মাকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে। পরে বাহুবল থানা পুলিশের জিম্মায় শিশুটিকে নিয়ে যাওয়া হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সোমবার দুপরে সিলেট থেকে ছেড়ে কুমিল্লাগামী একটি যাত্রীবাহিবাস (ঢাকা মোট্রো ব ১১-০৮৬৮) ঢাকা-সিলেট মহসড়কের উপজেলার লস্করপুর নামক স্থানে পৌঁছলে চাকা পাংচার হয়ে উল্টে গিয়ে খাদে পড়ে যায়। এতে অন্ততঃ ৩০ জন যাত্রী আহত হন। খবর পেয়ে বাহুবল থানা পুলিশ ও শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে এসকেবেটর ও ক্রেন দিয়ে উদ্ধারের বাসটিকে সরিয়ে উদ্ধার কাজ চালানোর চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়ে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়।

এরই মধ্যে স্থানীয় লোকজন অন্ততঃ ৩০ জনকে বাসের ভিতর থেকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠান। পরে শায়েস্তাগঞ্জ ফায়ার ষ্টেশনের ষ্টেশন অফিসার জামাল উদ্দিনের নেতৃত্বে একদল উদ্ধারকর্মী ঘটনাস্থলে এসে ড্রিল মেশিন দিয়ে বাসের বডি কেটে আনুমানিক ৩৫ বছরের একজন মহিলাকে নিহত ও ৫০ বছরের একজন মহিলাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করেন। আহতের তাৎক্ষণিক পরিচয় জানা সম্ভব হয়নি।

জেলা পুলিশের সিনিয়র এএসপি রাসেলুর রহমান জানান, বৃষ্টি চলাকালীন সময়ে গাড়ীর গতিবেগ বেশি থাকায় চাকা পাংচার হয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাসটি উল্টে যায়। বিকেল ৫টা এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত জীবিত শিশুটির মা ও শিশুর পরিচয় জানা যায়নি।