পটুয়াখালীতে চাঞ্চল্যকর চার হত্যা মামলার বাদী পরিবারের সংবাদ সম্মেলন

৫:০৫ অপরাহ্ন | বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২৩, ২০১৭ দেশের খবর, বরিশাল

জাহিদ রিপন, পটুয়াখালী প্রতিনিধি পটুয়াখালীর চাঞ্চল্যকর ট্রিপল মার্ডারের চার মাস অতিবাহিত হলেও পুলিশের নিষ্ক্রিয়তার কারনে আসামীরা ধরা পড়ছে না বলে অভিযোগ করেছেন নিহতের স্বজনরা।

আসামীদের মামলা তুলে নেয়ার অব্যাহত হুমকী, ভয়-ভীতি প্রদর্শনের কারনে নিজ বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন মামলার বাদীসহ অন্যরা। ফলে আসামীদের দ্রুত গ্রেফতার ও তাদের শাস্তির দাবীতে আজ বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২টায় পটুয়াখালী প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছে মামলার বাদী পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার আমখোলা ইউনিয়নের ছইলাবুনিয়া গ্রামের ইদ্রিস মোল্লা (৫৪)। এ সময় তার স্ত্রী মিনারা বেগম (৪৫) উপস্থিত ছিলেন।

আলোচিত চারটি হত্যাকান্ডের বিচারের দাবী করে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ইদ্রিস মোল্লা জানান, জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারী মাসের ১০ তারিখে তাদের চোখের সামনে নিজ বাড়িতে মাইনুদ্দিন, মোশারেফ, মোকাররম, জহিরুল, আব্বাস, নাসির, খোকন, তপনসহ আরো কয়েকজন নির্মমভাবে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করে তার ছেলে এসএসসির পরীক্ষার্থী মো.শফিক মোল্লা(১৭) কে।  এ ঘটনায় ১৩ মার্চ তারিখ গলাচিপা সিনিয়র ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ২০ জনকে আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করেন তিনি। যার না-সিআর ১৭/২০১৭।

পুলিশের নিষ্ক্রীয়তার কারনে আসামীরা এ সময় মামলা তুলে নিতে হুমকী-ধামকী দিতে থাকে। মামলা তুলে না নেয়ায় চলতি বছর আগষ্ট মাসের এক তারিখ আসামীরা তার ছোট ভাই দোলোয়ার মোল্লা(৫০), ভাইয়ের স্ত্রী পারভীন বোগম(৪০) এবং ভাইয়ের একমাত্র পালিত কন্যা কাজলী বেগম (১৫)কে নির্মমভাবে কুপিয়ে, শরীর থেকে মাথা বিচ্ছিন্ন করে ঘরের মধ্যে হত্যা করে রাথে।

পর পর এমন নির্মম হত্যা কান্ডের ঘটনা ঘটলেও পুলিশ এখন পর্যন্ত আসামীদের কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। আসামীদের ভয়ে তিনি শ্বশুরবাড়ি আউলিয়াপুরে স্থায়ীভাবে চলে আসতে বাধ্য হয়েছেন বলে সংবাদ সম্মেলনে জানান।

সময়ের কণ্ঠস্বর/রবি