সংবাদ শিরোনাম

দেশে আবারও লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ, মৃত্যু ১৩ফের করোনার সংক্রমণ বাড়ার আশঙ্কা, প্রধানমন্ত্রীর তিন নির্দেশনাবাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক আরও মজবুত হবে: : নরেন্দ্র মোদিসীমানা বাণিজ্যের ক্ষেত্রে বাধা হওয়া উচিত নয়: প্রধানমন্ত্রীগাজীপুরে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে যুবক আটককালকিনিতে পরকীয়া প্রেমিক-প্রেমিকা আপত্তিকর অবস্থায়  আটকজিয়াউর রহমানকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য আপত্তিকর: রিজভীনিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বরযাত্রীবাহী বাস ধানক্ষেতে, আহত ১৫রংপুরে ধর্ষণ মামলায় এএসআইসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিটসিরাজগঞ্জে পুত্রবধু ধর্ষণের অভিযোগে শ্বশুর গ্রেফতার

  • আজ ২৪শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

হালুয়াঘাটে ইটভাটায় চলছে অবাধ শিশু শ্রম

৭:১৮ অপরাহ্ন | বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২৩, ২০১৭ দেশের খবর, ময়মনসিংহ

সাইদুর রহমান রাজু, হালুয়াঘাট (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি- ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট উপজেলার অধিকাংশ ভাটায় শিশু শ্রমে তৈরি হচ্ছে ইট।

ইটভাটাগুলোতে শ্রমিক হিসেবে কাজ করছে শিশুরা। এতে শিক্ষার অধিকার থেকে বঞ্চিত হওয়ার পাশাপাশি ভাটার বিষাক্ত ধোঁয়ায় মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়ছে। বাধ্য হয়ে এসব শিশু-কিশোরকে ইটভাটায় কাজ করতে হচ্ছে।

সরকারি নীতিমালা উপেক্ষা করে উপজেলার বিভিন্ন বিদ্যালয় ও মাদরাসা পড়ুয়া কোমলমতি শিশুরা ঝুঁকিপূর্ণ কাজে নিয়োজিত রয়েছে। ভাটায় কিছু অসাধু শ্রমিক সরদারের খপ্পরে পরে গরিব ও অসহায় পরিবার সংসারে বাড়তি রোজগারের আশায় স্কুল পড়ুয়া শিশুদের ইটভাটার কাজে পাঠাচ্ছেন। এতে শিশুরা একদিকে যেমন শিক্ষার অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে; অপরদিকে ভাটার বিষাক্ত ধোঁয়ায় মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়েছে।

স্থানীয় ভাটাগুলোয় মধ্যে প্রায় ১ হাজারের মতো নারী-পুরুষ শ্রমিক রয়েছে। এদের মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন বয়সের শিশু ইট তৈরি, কাঁচা ইট রোদে শুঁকানো ও সাজিয়ে রাখার কাজ করছে তারা। কোনো কোনো শিশু ২০ কেজি ওজনের সমান ছয়টা কাঁচা ইট মাথায় করে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় নিয়ে যায়। তাদের অভিভাবকদের অনেককে ভাটা-মালিকরা দাদন দিয়েছেন। দাদনের চাপ সামলাতেই টাকা পরিশোধ করতেই বাবা-মায়ের সঙ্গে তাদের শিশু সন্তানরাও কাজ করছেন বলে জানা গেছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বিষমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র মো: শরীফ (৮), দড়ি নগুয়া সদ্য সরকারি প্রাথমিক বিদ্যলয়ের চতুর্থ ছাত্র সোহাগ (১২), আরিফ (৬) এর মত কোমলমতি প্রায় শতাধিক শিশু বড়দের পাশপাশি ভাটায় কাজ করছে। তাদের জীবন থেকে হারিয়ে যাচ্ছে মূল্যবান সময়। শিক্ষার মানবিক বিকাশ থেকে পিছিয়ে পড়ছে। ভাটায় নির্গত বিষাক্ত কালো ধোঁয়ায় অপরিণত বয়সে রয়েছে নানা রোগব্যাধির ঝুঁকিতে ।

শিশু শ্রমিক হৃদয় বলেন, স্কুল থেকে এসে বাকী সময় ভাটায় কাজ করি। ৩ হাজার ইট রোদে উল্টাতে পারলে ১৫ টাকা মজুরি পাওয়া যায়।

এমইবি ও এএইচবি ব্রিকস ভাটার শ্রমিক সর্দার আবু হানিফ বলেন, আমার দায়িত্বে দুটি ইট ভাটায় দাদন নেয়া প্রায় ৫০ জন শিশু শ্রমিক রয়েছে। তারা ভাটার কর্মরত শ্রমিকদের ছেলে-মেয়ে। দাদনের টাকা মওকুফ পূর্বক সাপ্তাহিক ও দৈনিক মুজরীতে ভাটায় কাজ করছে।

এ বিষয়ে উপজেলা আইনশৃঙ্খলা সমন্বয় কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহি অফিসার জাকির হোসেন বলেন, ইটভাটায় শিশু শ্রমের বিষয়টি জানা ছিল না, শিশুশ্রম মানবাধিকার লঙ্ঘন কাজা ও আইনত নিষিদ্ধ। অতি দ্রুত যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।

সময়ের কণ্ঠস্বর/রবি