গোবিন্দগঞ্জে দু’পক্ষের সংর্ঘষে নিহত ১, আহত-১০

৮:০৫ অপরাহ্ন | বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২৩, ২০১৭ দেশের খবর

মোঃ আঃ খালেক মন্ডল, গাইবান্ধা থেকে:
গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংর্ঘষে এক জন নিহত। এ সংর্ঘষে আরো ১০ ব্যক্তি আহত হয়েছে ।

গত ২২ নভেম্বর বুধবার সকাল ৭ টায় উপজেলার কাটাবাড়ী ইউপির ১নং কাটাবাড়ী গ্রামে মৃত ইজবার আলী ব্যাপারীর পুত্র আজাহার ব্যাপারী (৬০) তার শরিষার জমির বেড়া দেওয়াকে কেন্দ্র করে প্রতিবেশি মৃত আজগর আলীর পুত্র গোলজার রহমান কান্দুর কথার কাটি হয় ।

এর এক পর্যায়ে কান্দুর ও তার লোকজন রামদাম, চাইনিজ কুরাল, হাসুয়া ,রড, লাঠি নিয়ে আজাহার ও তার লোজনের উপর হামলা চালায় এবং এলোপাথারী মারপিট ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে গুরুতর জখম করে। পরে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে এসে তাদেরকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই দিন সন্ধ্যায় আজাহার আলী ব্যাপারীর মৃত্যু হয়।

এ সংর্ঘষে আহতরা হলেন,ঈদুল (৩৫), তাজুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর আলম মিষ্টার, তালাশ , মেজবাহুল,ম াহমুদা বেগম ও মুক্তা রানী। প্রতিপক্ষদের মধ্যে আহত হয়েছেন গোলজার রহমান কান্দু, ছলিমুদ্দিন, ফরিদ উদ্দিন, কোরবান আলী সহ উভয় পক্ষের ১০ জন আহত হয়েছে।
এ দিকে আজাহারের মৃত্যুর খবর পেয়ে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করায় আইন শৃংখলা রক্ষায় পুলিশ মোতায়ন করছে ।
এ ব্যাপারে গোবিন্দগঞ্জ থানায় মামলার প্রস্ততি চলছে।

 

গোবিন্দগঞ্জে নেশার টাকা না পাওয়ায় বড় ভাইকে মারপিটের অভিযোগ

অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কামারদহ ইউনিয়নের বার্ণাচন্দ্র শেখর ঘোড়ামারা) গ্রামের মৃত-ছামুছ উদ্দিনের পুত্র সাইদুর রহমান নেশা গ্রস্ত ছোট ভাই রনজু মিয়া (৩৫) গত ১৯ নভেম্বর/১৭ ইং তারিখে ছোট ভাই রনজু মিয়া নেশার টাকার জন্য বড় ভাইয়ের উপর চরম ভাবে চড়াও হয়। নেশার টাকা দিতে অস্বীকার করায় ছোট ভাই ওই দিন সন্ধ্যায় ফাঁসিতলাহাটে অগনিত মানুষের সমাগমের মাঝে অসুস্থ্য বড় ভাইকে মারপিট করে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের উপর ফেলে দেয়। এ সময় অল্পের জন্য যানবাহনের কবল থেকে সে প্রানে রক্ষা পায় বলে জানান।

বড় ভাই সাইদুল ইসলাম আরো জানান, তার এই ছোট ভাই রনজু মিয়া স্থানীয় কিছু চিহিৃত বখাটে ছেলেদের সাথে মেশার কারনে মদ, গাঁজা, ফেন্সিডিল ও মরণনেশা ইয়াবায় আসক্ত হয়ে পড়ে। এ নেশার কারণে সে তার সকল অর্জিত সম্পদ নষ্ট করেছে। এ ছাড়াও নেশার টাকা জোগাড় করতে যেয়ে স্ত্রী সন্তান তার নিকট থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে আছে। প্রায়ই নেশা করে এসে তার স্ত্রী এবং সন্তানের উপর অমানবিক অত্যাচার চালাতো। সংসারের যাবতীয় আসবাব পত্র এবং ভিটে মাটি সব বিক্রি করে এখন নিঃস্ব হয়ে পড়েছে।

প্রায়ই নেশার টাকার জন্য তার উপর চড়াও হয়। তিনি অসুস্থ্য নিজের সংসার চালানো কঠিন হয়ে পড়ছে। ওই দিন নেশার টাকা না দেয়াই সে ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে মারপিট করে। বর্তমানে তার অত্যাচারে গ্রামের লোক জনসহ পরিবাররের সকলেই অতিষ্ঠ হয়ে পড়ছে।

 

যে কোন সময় তার দ্বারা প্রানহানী ঘটতে পারে বলে তিনি নেশা গ্রস্ত ছোট ভাই রনজুকে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে আটক রাখার জন্য থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি তদন্ত অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, তদন্ত করে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

পলাশবাড়ীতে সেক্টরভিত্তিক পাবলিক প্রাইভেট ইনিশিয়েটিভ (পিপিআই) বাস্তবায়ন কৌশল নির্ধারণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে সেক্টরভিত্তিক পাবলিক প্রাইভেট ইনিশিয়েটিভ (পিপিআই) বাস্তবায়ন কৌশল নির্ধারণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা কৃষি সেক্টর পিপিআই কমিটির আয়োজনে ও হেলভেটার্স স্ট্রাটেজিক পার্টনারশিপ কনভিনিং এন্ড কনভিন্সিং (এসপিসিসি) প্রোগ্রাম পাথওয়ে-৩ সহযোগিতায় উপজেলা প্রাণি সম্পদ অফিসের হলরুমে অনুষ্ঠিত হয়।

সেবাদানকারী সংগঠন ও ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদের উদ্দেশ্যে পণ্য উৎপাদন এবং ব্যাংকের ঋণ সুবিধার বিভিন্ন দিক তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা কৃষি অফিসার আজিজুল ইসলাম, সোনালী ব্যাংক লিঃ-এর ম্যানেজার শফিকুল ইসলাম, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের ম্যানেজার নজরুল ইসলাম ও জনতা ব্যাংক লিঃ-এর সিনিয়র অফিসার হাবিবা জাহান।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, গণ উন্নয়ন কেন্দ্রের সুন্দরগঞ্জ উপজেলা কো-অর্ডিনেটর জহুরুল ফেরদৌস, মাইক্রো ফাইনেন্স অফিসার জিয়াউর রহমান, পলাশবাড়ী বণিক সমিতির সভাপতি তছলিম উদ্দিন ও পলাশবাড়ী সেবাদানকারী সমিতির সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম প্রমুখ। কর্মশালার সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন গণ উন্নয়ন কেন্দ্রের উপজেলা কো-অর্ডিনেটর মাহফুজা খাতুন। এসময় পলাশবাড়ী উপজেলার সেবাদানকারী সমিতি (এলএসপি) ও বণিক সমিতির সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।