বারী সিদ্দিকীর মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও খালেদা জিয়ার শোক প্রকাশ

৩:৪৪ অপরাহ্ন | শুক্রবার, নভেম্বর ২৪, ২০১৭ Breaking News, জাতীয়, বিনোদন, স্পট লাইট

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক: প্রখ্যাত সংগীতশিল্পী বারী সিদ্দিকীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

শুক্রবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের প্রেস উইং থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়েছে। এদিকে শুক্রবার দুপুরে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

শোকবার্তায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, দেশের মানুষ একজন জনপ্রিয় বাংলা লোকসংগীত শিল্পীকে হারাল। যত দিন লোকসংগীত থাকবে, তত দিন বারী সিদ্দিকী বেঁচে থাকবেন।

বিশিষ্ট সংগীতসাধক, গীতিকার ও বংশীবাদক বারী সিদ্দিকীর আত্মার মাগফিরাত কামনা করে শোকার্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

এদিকে খালেদা জিয়া বলেন, ‘তার গান এ দেশের সংগীতপ্রেমী মানুষের হৃদয়কে নাড়া দিয়েছিল। তার কণ্ঠে মরমি গানে সংগীতপ্রিয় মানুষ মোহাবিষ্ট থাকত। বারী সিদ্দিকীর মৃত্যু সংগীতানুরাগী মানুষের জন্য অত্যন্ত মর্মস্পর্শী ও বেদনার।’

‘দেশের এই বরেণ্য সংগীতসাধক তার অক্লান্ত অধ্যাবসায়ে দেশের লোকসংগীত ও আধ্যাত্মিক ধারার গানের জগৎকে করেছিলেন সমৃদ্ধ। সংগীতাকাশে তিনি ছিলেন এক উজ্জ্বল জ্যোতিষ্ক। তার মৃত্যুতে দেশ হারাল অসাধারণ একজন গুণী শিল্পীকে, যার অভাব সহজে পূরণ হওয়ার নয়। সংগীতে তার অবদান জাতি চিরদিন স্মরণ রাখবে।’

বিএনপির চেয়ারপারসন বারী সিদ্দিকীর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে শোকার্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

বিএনপি মহাসচিবের শোক প্রকাশ

অপর এক শোকবার্তায় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘সংগীত সাধনায় বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী বারী সিদ্দিকীর মৃত্যুতে দেশের সংগীতপ্রিয় মানুষের মধ্যে গভীর শোকের ছায়া নেমে এসেছে। লোকগান ও আধ্যাত্মিক ধারার গানের জন্য তিনি দেশের মানুষের কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয় ও সুপরিচিত ছিলেন। তার মৃত্যুতে আমি গভীরভাবে শোকাহত হয়েছি।’

বারী সিদ্দিকীর আত্মার মাগফিরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব।

উল্লেখ্য হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে রাজধানীর একটি হাসপাতালে মারা যান সংগীতশিল্পী বারী সিদ্দিকী।

হাসপাতাল থেকে সকাল ৭টার দিকে রাজধানীর ধানমণ্ডির বাড়িতে তার মরদেহ নেওয়া হয়। এর পর সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। সকাল সাড়ে ১০টায় কর্মস্থল বাংলাদেশ টেলিভিশনে অনুষ্ঠিত হয় দ্বিতীয় জানাজা।

১৯৯৯ সালে হুমায়ূন আহমেদের ‘শ্রাবণ মেঘের দিন’ ছবিতে তিনটি গান গেয়ে আলোচনায় আসেন বারী সিদ্দিকী। ‘আমার গায়ে যত দুঃখ সয়’, ‘মানুষ ধরো মানুষ ভজো, ‘পুবালি বাতাসে’ এগুলো তার জনপ্রিয় কিছু গান।