৭ই মার্চের ভাষণ স্বীকৃতি: রাজশাহীতে আনন্দ শোভাযাত্রা

১:১৩ অপরাহ্ন | শনিবার, নভেম্বর ২৫, ২০১৭ দেশের খবর, রাজশাহী

ওবায়দুল ইসলাম রবি, রাজশাহী ব্যুরো- বঙ্গবন্ধু তার ৭ই মার্চের ভাষণে বিজয়ী দল হিসেবে আওয়ামীলীগের নির্দেশনা অনুযায়ী দেশ পরিচালনার ঘোষণা দেন।

জনগনের প্রতি পাকিস্তান সরকারের সঙ্গে সর্বাত্মক অসহযোগিতার নির্দেশ দিয়ে তিনি তার ভাষণে কোট-কাচারি, অফিস, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেন। প্রয়োজনে যুদ্ধের মাধ্যমে স্বাধীনতা অর্জনের লক্ষে তিনি বলেন, “প্রত্যেক গ্রামে ও মহল্লায়, আ’লীগের নেতৃত্বে সংগ্রাম পরিষদ গড়ে তোল এবং তোমাদের যার যা কিছু আছে তা নিয়ে প্রস্তুত থাকবা।

বক্তৃতায় আরো বলেন “প্রত্যেক ঘরে ঘরে দূর্গ গড়ে তোল। “এ কথায় গেরিলা যুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশকে মুক্ত করার প্রকাশ্য নির্দেশ পাওয়া যায়। ততকালিন দশ লক্ষ লোকের জনসবায় বঙ্গবন্ধুর বক্তৃতায় ‘বাংলাদেশ’ শব্দটি ব্যবহার করে ভবিষ্যৎ নতুন রাষ্ট্রের নামকরনে চুড়ান্ত করেন। তার ভাষণের শেষ অংশে “এবারের সংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম ” ঘোষণা দিয়ে তিনি স্পষ্টভাবেই স্বাধীনতার ডাক দেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক সেই ৭ মার্চের ভাষণ ইউনেস্কোর “মেমোরি অব দ্য’ ওয়াল্ড ইন্টারন্যাশনাল রেজিস্ট্রার” এ অর্ন্তভুক্তির মাধ্যমে” বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্যের’ র” স্বীকৃতি লাভ করায় সারা দেশের ন্যায় রাজশাহীতে আনন্দ শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার সকাল ১০ টায় অনুষ্ঠিত এ শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করেন, রাজশাহী মহানগর আ’লীগ এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, সাধারন সম্পাদক ডাবলু সরকার, বিভাগীয় কমিশনার নুর-উর-রহমান, জেলা প্রশাসক, জেলা রেঞ্জ ডিআইজি, পুলিশ কমিশনার, পুলিশ সুপার, বিভিন্ন অধিদপ্তরের প্রধান, দলীয় নেতা কর্মীসহ স্কুল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রীরা।

সময়ের কণ্ঠস্বর/রবি