সংবাদ শিরোনাম

বাংলাদেশকে তিস্তার পানি না দেয়ার সাফ ঘোষণা মমতারশ্বশুরবাড়ি যাওয়ার আগে কাঁদতে কাঁদতেই মারাই গেলেন কনে!এবার ‘টোকাই’ হয়ে আসছেন হিরো আলমহাসপাতালের ওষুধ পাচারের ছবি তোলায় ১০ সংবাদকর্মী তালাবদ্ধবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ স্বাধীনতার প্রকৃত ঘোষণা: প্রধানমন্ত্রীনির্মাণকাজ শেষের আগেই ‘মডেল মসজিদের’ বিভিন্ন স্থানে ফাটলআহসানউল্লাহ মাস্টারসহ ১০ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান পাচ্ছেন স্বাধীনতা পুরস্কারঐতিহাসিক ৭ মার্চের সুবর্ণ জয়ন্তী: টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে মানুষের ঢলচট্টগ্রাম কারাগারে হাজতি নিখোঁজ, জেলার-ডেপুটি জেলার প্রত্যাহারদেবীগঞ্জে ট্রাক্টরের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু

  • আজ ২৩শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মালিতে হামলায় ৪ শান্তিরক্ষী নিহত

১:৫৯ অপরাহ্ন | শনিবার, নভেম্বর ২৫, ২০১৭ আন্তর্জাতিক, স্পট লাইট

আন্তর্জাতিক ডেস্ক– মালিতে শুক্রবার পৃথক দুই হামলায় জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী বাহিনীর চার সদস্য এবং মালির এক সেনা নিহত হয়েছেন। মালিতে জাতিসংঘ মিশন থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে কিন্তু নিহত শান্তিরক্ষীদের জাতীয়তা প্রকাশ করা হয়নি।

এক বিবৃতিতে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ জানিয়েছে, শুক্রবার সকালে নাইজার সীমান্তের কাছে মেনাকা এলাকায় একটি যৌথ অভিযান পরিচালনার সময় সন্ত্রাসীদের হামলায় তিন শান্তিরক্ষী ও মালির এক সেনা নিহত হন। এ সময় ১৫ শান্তিরক্ষী ও এক জন বেসামরিক লোক আহত হন। দেশটির মোপতি এলাকায় আরেক হামলায় এক শান্তিরক্ষী ও তিন বেসামরিক লোক নিহত হন।

এ হামলার নিন্দা জানিয়ে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ বলেছে, শান্তিরক্ষীদের লক্ষ্য করে হামলা চালানোর ঘটনা আন্তর্জাতিক আইনে ‘মানবতাবিরোধী অপরাধ’ হিসেবে গণ্য হতে পারে।

মিনুসমার প্রধান মোহাম্মদ সালেহ আনাদিফ বিবৃতিতে বলেছেন, ‘এ অঞ্চলে বেসামরিক নাগরিকদের সাহায্য করার জন্য অভিযান পরিচালিত হলেও কখনো কখনো প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সহায়তাও দেওয়া হয়।

সংঘর্ষ কবলিত মালিতে স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠা করতে ২০১৩ সাল থেকে শান্তিরক্ষা মিশন কাজ করছে। নাইজার ও বুরকিনা ফাসোর সীমান্তবর্তী মালিতে ইসলামপন্থি সশস্ত্র বিদ্রোহী ও জঙ্গিরা প্রায়ই আন্তর্জাতিক শান্তিরক্ষী বাহিনী ও দেশটির সেনাবাহিনীর ওপর হামলা চালিয়ে থাকে।

মালিতে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশন ‘মিনুসমা’ জানিয়েছে, কার্যক্রম শুরুর পর এ পর্যন্ত দেশটিতে তাদের ১৪৬ জন শান্তিরক্ষী নিহত হয়েছেন। জাতিসংঘের সাম্প্রতিক সময়ে যেকোনো দেশে পরিচালিত মিশনের তুলনায় এই মৃত্যুর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি।

সময়ের কণ্ঠস্বর/রবি