সংবাদ শিরোনাম

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে পরিবর্তনের ইঙ্গিত আইনমন্ত্রীরপঞ্চম দফায় স্বেচ্ছায় ভাসানচর যাচ্ছেন আরও ৩ হাজার রোহিঙ্গাআল-জাজিরার বিরুদ্ধে ৫০০ মিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণের মামলারাজশাহীতে বিএনপির সমাবেশ আজ, সব রুটের বাস বন্ধনিষেধাজ্ঞা পৌঁছানোর ৫২ মিনিট আগে বেনাপোল দিয়ে ভারতে পালান পি কে হালদার৮ম শ্রেণি পাস করে ‘ডাক্তার’, চেম্বার খুলে দেখছেন রোগী!বাংলাদেশের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পুনর্বিবেচনার আহ্বান জাতিসংঘেরফুলবাড়ীতে টিভি দেখার প্রলোভনে প্রতিবন্ধী শিশুকে বলাৎকারআল-জাজিরা একটা নাটক লিখেছে, যা বেমানান: পররাষ্ট্রমন্ত্রীসিএমপিতে ৮ পুলিশ কর্মকর্তার দফতর বদল

  • আজ ১৭ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মাত্র ২ রানেই অলআউট গোটা টিম!

১২:৫৯ অপরাহ্ন | শনিবার, নভেম্বর ২৫, ২০১৭ খেলা, স্পট লাইট

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক: ক্রিকেট মানেই রেকর্ড খেলা। প্রায়ই তৈরি হয় নতুন নতুন রেকর্ড। আবার ২২ গজের ক্রিজে অঘটনের জন্মও নতুন কিছু নয়। সম্প্রতি সামনে এসেছে তেমনই একটি ঘটনা, যা সচরাচর দেখা যায় না। যেখানে ওয়ানডে ম্যাচে ১৭ ওভার ব্যাট করে মাত্র ২ রানে গুটিয়ে গেছে একটি দল। দলের এগারো জনের মধ্যে ৯ জনই শূন্য রানে ফিরে গেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মাঠে।

দেশটির নাগাল্যান্ডের মেয়েরা গুন্টুরের জে কে সি কলেজ মাঠে অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব-১৯ ওয়ানডে এবং নক আউট টুর্নামেন্টে এ ‘কীর্তি’ গড়েন।

ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই একের পর এক উইকেট পড়তে থাকে নাগাল্যান্ডের। দলের একমাত্র রানটি করেন ওপেনার মেনকা। তাও কিনা ১৮ বল খেলে।
অপর রানটি এসেছে কেরলের বোলার অ্যালেনা সুরেন্দ্রান ওয়াইড বল করায়। তিনিই একমাত্র বোলার যিনি একমাত্র রান দিয়েছেন এবং কোনও উইকেট পাননি। তাঁর বোলিং পরিসংখ্যান ৩-২-২-০।

কেরলের বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে সফল অধিনায়ক মিন্নু মানি। চার ওভার বল করে কোনও রান না দিয়ে চার উইকেট পেয়েছেন তিনি। এছাড়া সৌরাভ্যা পি পেয়েছেন দু’টি উইকেট। সন্দ্রা সুরেন এবং বিবি সেবাস্টিন একটি করে উইকেট পেয়েছেন।

এত সহজে ম্যাচ জিতে যাওয়ায় রীতিমতো উচ্ছ্বসিত কেরলের কোচ সুমন শর্মা। দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের জন্য মেয়েদের শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, ‘এটা খুবই বড় জয়। আমরা প্রতিটি ম্যাচেই দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলেছি কিন্তু এদিনের ম্যাচে মেয়েরা দুর্দান্ত পারফর্ম করেছে। নাগাল্যান্ড প্রতি ম্যাচেই ২০, ৩০, ৪০ রানের মধ্যে অলআউট হয়ে যাচ্ছিল। তবে ২ রানে তাঁদের অলআউট করাটা দুর্দান্ত ব্যাপার। অধিনায়ক মিন্নু এবং অন্যান্যরা প্রশংসার যোগ্য। ’