নোয়াখালীর হাতিয়ায় ডাকাতি, ১০ লাখ টাকা লুট


মো: ইমাম উদ্দিন সুমন, স্টাফ রিপোর্টার :

নোয়াখালীর হাতিয়ায় ব্যবসায়ী ও বীমা কর্মকর্তার অফিসে ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসা হাতিয়া থানার এসআই হুমায়ুন কবির বলেন, ‘ঘটনাস্থলে গিয়ে জানতে পারি সুমন, নাছির ও মাসুদসহ ৭/৮ জন রফিকুল ইসলামের অফিসে হামলা করে। লোকজন এগিয়ে এলে তারা পালিয়ে যায়। পরে আহত রফিকুলের জবানবন্দি নিতে উপজেলা সদর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গেলেও জ্ঞান না ফেরায় তা নেওয়া সম্ভব হয়নি। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে অস্ত্রের একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।’

 

শনিবার (২৫ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৭টায় হাতিয়ার সোনাদিয়া ইউনিয়নের চরচেঙ্গা বাজারে ব্যবসায়ী ও বীমা কর্মকর্তা রফিকুল ইসলামের অফিসে এ দূধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ডাকাতরা অফিসে ঢুকে দরজা বন্ধ করে তাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে আলমারি ভেঙে ১০ লাখেরও বেশি টাকা, মালামাল নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ করেছে রফিকুল ইসলামের পরিবার।

রফিকুল ইসলাম চরচেঙ্গা বাজার বণিক কল্যাণ সমিতির কোষাধ্যক্ষ ও পপুলার লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানির আঞ্চলিক কর্মকর্তা। তিনি একাধিক কোম্পানির স্থানীয় এজেন্ট।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, সন্ধ্যা ৭টায় চরচেঙ্গা গ্রামের নাছির উদ্দিনের ছেলে সুমন (৩৫), তাজুল ইসলামের ছেলে রাশেদ (৩২) ও মাসুমসহ (২৩) ৭/৮ জনের একদল অস্ত্রধারী ডাকাত রফিকুল ইসলামের অফিসে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দেয় এবং তাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। ডাকাতরা আলমারি ভেঙে নগদ ১০ লাখেরও বশি টাকা ও বিভিন্ন মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। ডাকাতরা চলে যাওয়ার পর স্থানীয়রা গুরুতর আহত রফিককে উদ্ধার করে স্থানীয় ডাক্তারের চেম্বারে নিয়ে যায়। পরে চিকিৎসার জন্য তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়।

 

হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামরুজ্জামান শিকদার বলেন, ‘ঘটনা শোনার পর পুলিশ পাঠিয়েছি। এখনও কোনও অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

◷ ২:২২ অপরাহ্ন ৷ রবিবার, নভেম্বর ২৬, ২০১৭ অপরাধ