কর্মবিরতিতে সরকারি কলেজের শিক্ষকরা

২:৪০ অপরাহ্ন | রবিবার, নভেম্বর ২৬, ২০১৭ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর- জাতীয়করণ করা উপজেলা পর্যায়ের ২৮৫টি কলেজের শিক্ষকদের বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারে অন্তর্ভুক্ত না করার দাবিতে পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী কর্মবিরতি পালন করছেন সরকারি কলেজের শিক্ষকরা। ‘নো বিসিএস, নো ক্যাডার’ দাবিতে রবিবার সকাল থেকে শুরু হওয়া এই কর্মবিরতি শেষ হবে আগামীকাল সোমবার।

সরকারি কলেজের শিক্ষকদের কর্মবিরতির কারণে আজ ও কালকের জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সব পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক (সম্মান, পার্ট-৩) বিশেষ ও স্নাতক কোর্সের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। সোমবার স্নাতক পরীক্ষা রয়েছে।

দাবি মানা না হলে আগামী বছরের জানুয়ারি মাসে আবারও কর্মবিরতির মতো কর্মসূচিতে যেতে বাধ্য হবেন বলে শিক্ষকরা।

নতুন জাতীয়করণ করা কলেজের শিক্ষকদের শিক্ষা ক্যাডারে অন্তর্ভুক্ত না করে তাদের নিয়োগ, পদায়ন, পদোন্নতি ও চাকরির অন্যান্য শর্তসহ স্বতন্ত্র বিধিমালা প্রণয়ন করার দাবি জানান কর্মবিরতি পালন করা শিক্ষকরা। কোনোভাবেই তারা যেন বর্তমান ও ভবিষ্যতে বিসিএস পরীক্ষার মাধ্যমে শিক্ষা ক্যাডারে নিয়োগ পাওয়া কর্মকর্তাদের পারস্পরিক জ্যেষ্ঠতা, পদোন্নতি, পদায়নসহ কোনো সুযোগ-সুবিধার অন্তর্ভুক্ত না হতে পারেন সেই ব্যবস্থা নেয়ার দাবি তাদের।

সম্প্রতি উপজেলা পর্যায়ে ২৮৫টি কলেজ জাতীয়করণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এর আগে যেসব বেসরকারি কলেজ সরকারি করা হয়েছে, সেসব কলেজের শিক্ষকেরা ক্যাডার শ্রেণিতে অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন। এসব কলেজের প্রায় ১২ হাজার শিক্ষকও ক্যাডার শ্রেণিতে অন্তর্ভুক্ত হবেন-এমন ধারণা থেকে বিসিএস আন্দোলনে নেমেছেন শিক্ষকরা। অবশ্য শিক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, সরকারীকরণ হওয়া কলেজের শিক্ষকদের মর্যাদা নিয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

রবি