বিমানবন্দরে নেমেই যা বললেন বিশ্ব সুন্দরী

৬:১৯ অপরাহ্ন | রবিবার, নভেম্বর ২৬, ২০১৭ বিনোদন, স্পট লাইট

বিনোদন ডেস্ক, সময়ের কণ্ঠস্বর: চলতি বছরের মিস ওয়ার্ল্ড খেতাব জিতেন ভারতের মানশি চিল্লার। গতকাল শনিবার দিবাগত রাতে কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে দেশে ফেরেছেন তিনি। এ সময় তাকে দেখতে অসংখ্য মানুষ বিমানবন্দরে ভিড় জমায়। একাধিক ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এ খবর প্রকাশ করেছে।

প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানানো হয়, মানশি বিমানবন্দরে পৌঁছানোর আগে থেকেই তাকে অভ্যর্থনা জানানোর জন্য বিমানবন্দরে জমকালো প্রস্তুতি ছিল। সকাল থেকেই বিমানবন্দরে জড়ো হতে থাকে বহু মানুষ। মুম্বাই বিমানবন্দরে পা রাখতেই তাকে অভ্যর্থনা জানান তারা। মানশিকে ফুলের মালা, কপালে চন্দনের টিপ পরিয়ে বরণ করে নেওয়া হয়। এ সময় তিনি মাথায় পরেছিলেন বিশ্ব জয়ের মুকুট।

এদিকে বিমানবন্দরে এমন জনসমর্থন দেখে আনন্দ ধরে রাখতে পারেননি মানুসী। বিমানবন্দরে নেমেই মানুসী বলেন, ‘দেশে ফিরে আমার ভীষণ ভালো লাগছে। এত মানুষ আমাকে অভ্যর্থনা জানাতে এসেছে, দেখে সত্যিই নিজেকে ধন্য মনে করছি।’

এশিয়ার মধ্যে ভারতই প্রথম মিস ওয়ার্ল্ড খেতাব পেয়েছিল। সেটা ১৯৬৬ সাল। ওইবার মেডিকেলের ছাত্রী রীতা ফারিয়া ভারতের প্রথম মিস ওয়ার্ল্ড হয়েছিলেন। ঘটনাচক্রে তার ঠিক অর্ধ শতাব্দী পর সেই একই খেতাব জয় করলেন মেডিকেলের আরেক ছাত্রী মানুষী চিল্লার।

সর্বশেষ ২০০০ সালে বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াংকা চোপড়া ভারতের হয়ে মিস ওয়ার্ল্ড খেতাব জিতেছিলেন। সেই সুবাদে ১৭ বছর পর কোনো ভারতীয় নারী বিশ্ব সুন্দরীর মুকুট পেলেন।

১৯৯৭ সালের ১৪ মে ভারতের হরিয়ানার একটি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন মানশি। ২০ বছর বয়সী মানশি ভারতের হরিয়ানা রাজ্যের অধিবাসী। বর্তমানে ভারতের ভগত ফুল সিং সরকারি মেডিক্যাল কলেজে চিকিৎসা শাস্ত্রে পড়াশোনা করছেন।

মানশির বাবা ডক্টর মিত্র বসু চিল্লার ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের একজন বিজ্ঞানী। মা নীলাম চিল্লার ইনস্টিটিউট অব হিউম্যান বিহেভিয়ার অ্যান্ড অ্যালাইড সায়েন্স-এর সহযোগী অধ্যাপক ও নিউরোকেমিস্ট্রি বিভাগের প্রধান।