সংবাদ শিরোনাম

কক্সবাজারে ইয়াবা সম্রাটের সহযোগীর বাড়ি থেকে ১ লাখ ২০ হাজার ইয়াবা উদ্ধারসিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্তরোহিঙ্গা শিশু অপহরণের পর হত্যার ঘটনায় নারীসহ দু’জন গ্রেপ্তারবেলকুচিতে দূর্বৃত্তদের আগুনে পুড়ে গেল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান !জামালপুরে মাদ্রাসা ছাত্রীকে রাতভর ধর্ষণ, গ্রেফতার মাদ্রাসার শিক্ষক‘করোনাকালের নারী নেতৃত্ব: গড়বে নতুন সমতার বিশ্ব’বগুড়ায় শিক্ষা প্রনোদনা পেতে প্রত্যয়নের নামে টাকা নেয়ার অভিযোগজামালপুরে ধর্ষণ মামলায় ধর্ষকের যাবজ্জীবনপাবনায় অবৈধ অস্ত্র তৈরির কারখানায় অভিযান, চারটি আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেফতার-২উপজেলা আ.লীগের সভাপতিকে ‘পেটালেন’ কাদের মির্জা!

  • আজ ২৪শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

‘মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের স্বদেশে ফিরিয়ে নিতে বাধ্য হবে’

৭:৫৫ অপরাহ্ন | রবিবার, নভেম্বর ২৬, ২০১৭ Breaking News, ফিচার

কক্সবাজার প্রতিনিধি: কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে মিয়ানমার থেকে নির্যাতনের শিকার হয়ে আসা রোহিঙ্গাদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ। রবিবার বিকেল চারটায় তিনি উখিয়ার বালুখালি ২নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ২ হাজার রোহিঙ্গার মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন।
এ সময় রাষ্ট্রপতি মিয়ানমার থেকে পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের সাথে কথা বলেন এবং তাদের খোঁজ খবর নেন।

ত্রাণ বিতরণ শেষে তিনি উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, “বাংলাদেশের জন্য রোহিঙ্গারা একটা বার্ডেন (বোঝা)। কিন্তু মানবিক দিক বিবেচনায় বাংলাদেশ তাদেরকে আশ্রয় দিয়েছে। সাধ্যমত তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে। “এখন চুক্তি হয়েছে; তারা যাতে নিজ দেশে সম্মানের সাথে ফিরতে পারে সেটা নিশ্চিত করা হবে। কারণ এখানে আন্তর্জাতিক চাপ রয়েছে। ”

রাষ্ট্রপতি আরও বলেন, রোহিঙ্গাদের জন্য একটা নিরাপদ অবস্থান তৈরী করে তারপর মিয়ানমারে ফেরত পাঠাতে কাজ করছে বাংলাদেশ। তিনি বলেন, বিশ্ব সম্প্রদায়ের চাপের মুখে পড়ে মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের স্বদেশে ফিরিয়ে নিতে বাধ্য হবে। নিরাপত্তা নিশ্চিত করেই তাদের মিয়ানমারে ফেরার ব্যবস্থা করা হবে।

এসময় আবার মিয়ানমারে ফিরে গেলে পরিবারের মৃত বা আহত সদস্যদের মত নির্যাতনের মুখোমুখি হওয়ার আশঙ্কার কথা রাষ্ট্রপতির কাছে তুলে ধরেন রোহিঙ্গারা।

রাষ্ট্রপতি হামিদ তাদের বলেন, “কেবল বাংলাদেশ না, সমগ্র বিশ্ব রোহিঙ্গাদের পাশে আছে। আপনারা যাতে সম্মানের সাথে ফেরত যেতে পারেন এবং নিরাপত্তার সঙ্গে নিজ দেশে বসবাস করতে পারেন, তা নিশ্চিত করে আপনাদের ফেরত পাঠানো হবে। ” এর আগে রাষ্ট্রপতি নিবন্ধন কার্যক্রম ও মেডিকেল স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।