কালকিনিতে মুক্তিযোদ্ধার বসত বাড়িতে হামলার অভিযোগ

৩:১৮ অপরাহ্ন | সোমবার, নভেম্বর ২৭, ২০১৭ ঢাকা, দেশের খবর

এইচ এম মিলন, কালকিনি (মাদারীপুর) প্রতিনিধিঃ পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মাদারীপুরের কালকিনিতে আবুল বাশার মিয়া নামের এক মুক্তিযোদ্ধার বসত বাড়িতে রাতের আধাঁরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করেছে দূর্বৃত্তরা। এ বিষয় আজ সোমবার সকালে থানায় অভিযোগ করেছেন ওই ভুক্তভোগী মুক্তিযোদ্ধা।

এলাকা ও ভুক্তভোগীর পরিবার সুত্রে জানাগেছে, পৌর এলাকার লক্ষিপুর-পখিরা গ্রামের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা আলী হোসেন মুন্সির ছেলে মুক্তিযোদ্ধা আবুল বাশার মিয়ার বসত বাড়িতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রোববার রাতের আধাঁরে প্রায় ৭/৮ জনের একটি দূর্বৃত্তের দল হামলা চালিয়ে বাড়ির গেট ও সাইবোর্ড ভাংচুর করে। এবং বাড়িতে প্রচুর পরিমান ইটপাটকেল ছুরে মাড়ে। এ বিষয় কালকিনি থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

এর আগেও কয়েক দফা হামলা চালানোর ঘটনায় মুক্তিযোদ্ধা বাশার মিয়া নিরুপায় হয়ে কালকিনি থানায় সাধারন ডায়রী করেন।

মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী লুৎফর নাহার ও মেয়ে রিপা আক্তার বলেন, আমাদের বাড়িতে মাঝে-মাঝে হঠাৎ করে রাতের আধাঁরে হামলা চালানো হচ্ছে। তাই আমরা জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে থানায় সাধারন ডায়রী করেছি।

এ ব্যাপারে কালকিনি থানার এসআই ওযাদুত মিয়া বলেন, বিষয়টি জেনেছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কালকিনিতে এসএসসি পরীক্ষার্থীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ

মাদারীপুরের কালকিনিতে কোচিং থেকে বাড়ি ফেরার পথে এক এসএসসি পরীক্ষার্থীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে এক লম্পট ভ্যান চালকের বিরুদ্ধে। পরে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

রোববার সন্ধ্যায় এ ঘটনাটি ঘটে। তবে ঘটনার পর থেকে লম্পট ভ্যান চালক পলাতক রয়েছে। এ বিষয় থানায় একটি ধর্ষন চেষ্টা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ভুক্তভোগী ওই ছাত্রী কালীনগর-ফাসিয়াতলা উচ্চ বিদ্যালয়ের এবারের এসএসসি পরীক্ষার্থী।

পুলিশ ও ভুক্তভোগীর পরিবার সুত্রে জানাগেছে, উপজেলার এনায়েতনগর এলাকার পশ্চিম আলীপুর গ্রামের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছাত্রী স্কুলের কোচিং শেষে সন্ধ্যায় একা বাড়ি রওনা দেয়। পথিমধ্যে ফরিদ মেম্বারের বাড়ির সামনের একটি ফাঁকা জায়গায় ওই ছাত্রীকে একা পেয়ে একই এলাকার বজলু সরদারের লম্পট ছেলে হৃদয় সরদার জোরপূর্বক ধর্ষন চেষ্টা চালায়।

এসময় ওই ছাত্রী অজ্ঞান হয়ে পরলে তাকে বিবস্ত্র অবস্থায় ফেলে রেখে লম্পট হৃদয় পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে দেখতে পেয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এ বিষয় কালকিনি থানায় একটি ধর্ষণ চেষ্টা মামলা দায়ের করে ভুক্তভোগীর পরিবার।

ভুক্তভোগীর চাচা ইউনুস মৃধা বলেন, আমার ভাতিজি একা কোচিং থেকে বাড়ি ফেরার পথে বখাটে হৃদয় ধর্ষণ চেষ্টা করে। পরে তাকে আমরা অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করি। আমরা ওই লম্পট হৃদয়ের বিচার চাই।

এব্যাপারে কালকিনি থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, থানায় একটি ধর্ষণ চেষ্টা মামলা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সময়ের কণ্ঠস্বর/রবি