মির্জা ফখরুল সাহেব, ধাক্কা দিয়ে আওয়ামী লীগকে ফেলা যাবে না : ওবায়দুল কা‌দের ‌

৩:৪৬ অপরাহ্ন | মঙ্গলবার, নভেম্বর ২৮, ২০১৭ Breaking News, জাতীয়, স্পট লাইট

সময়ের কণ্ঠস্বর: ধাক্কা দিয়ে আওয়ামী লীগ সরকারের পতন ঘটানো সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। আজ মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা দক্ষিণ নগর ভবনের সামনে ঢাকার প্রথম নির্বাচিত প্রয়াত মেয়র মোহাম্মদ হানিফের মৃত্যুবার্ষিকীর স্মরণসভায় এ মন্তব্য করেন তিনি।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারকে আন্দোলনের মাধ্যমে পতন ঘটানোর বিএনপি নেতাদের হুমকির প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, মির্জা ফখরুল সাহেব, ধাক্কা দিয়ে আওয়ামী লীগকে ফেলা যাবে না। আওয়ামী লীগ বিএনপি না। ওই মেয়র হানিফের জনতার মঞ্চের এক ধাক্কায় সরকারের পতন হয়েছিলো মনে আছে আপনাদের? আওয়ামী লীগ সেই দল। বঙ্গবন্ধুর আওয়ামী লীগ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে চলছে। এই আওয়ামী লীগের শেকড় বাংলাদেশের মাটিতে এখন অনেক গভীরে, ধাক্কা দিয়ে এই বটবৃক্ষের পতন হবে না।

গণঅভ্যুথান শব্দটি এখন জাদুঘরে দাবি করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আপনারা (বিএনপি) রঙিন স্বপ্ন দেখছেন, দেখতে থাকেন এই রঙিন স্বপ্ন। শেখ হাসিনার উন্নয়ন-অর্জন দিয়ে গণঅভ্যুথান শব্দটিকে জাদুঘরে দিয়ে দিয়েছেন।

আগামী নির্বাচ‌নে জনগণ বিএন‌পির ডাকে সাড়া দে‌বে না দা‌বি ক‌রে তি‌নি ব‌লেন, গণঅভ্যুথান এখন জাদুঘরে। গণঅভ্যুথান স্বপ্ন এখন দুঃস্বপ্নের নামান্তর। এই দুঃস্বপ্ন দেখে কোনো লাভ নেই। জনগণ শেখ হাসিনার সরকারের উন্নয়নে এত খুশি যে আপনারা সাড়ে আটবছর বার বার আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন, জনগণ সাড়া দেয়নি। সাড়ে আট বছরে সাড়া দেয়নি, আগামী এক বছরেও জনগণ আপনাদের ডাকে সাড়া দেবে না।

আগামী নির্বাচন সামনে রেখে মানুষের ঘরে ঘরে যাওয়ার পরামর্শ দিয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের ওবায়দুল কাদের বলেন, ৯১ সালের নির্বাচনে আমরা তো জিতেই গিয়েছি। নানান ষড়যন্ত্র ছিল। কিন্তু আমরা জিতেই গেছি। জেতার আগেই জিতে গেছি এই মন মমানসিকতার পুনরাবৃত্তি যেন আগামী নির্বাচনে না হয়।

তিনি ব‌লেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ বিশ্বস্বীকৃতি পাওয়ায় দেশে নবজাগরণ শুরু হয়েছে। এই জাগরণের ঢেউকে নির্বাচনের আগ পর্যন্ত রাখতে হবে। ঘরে ঘরে নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু করে দিন।

মহানগর আওয়ামী লীগ মিলে গেছে

মহানগর আওয়ামী লীগের দুই নেতা সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ ও মেয়র সাইদ খোকনকে মঞ্চের সামনে এনে সাবাইকে দেখিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, এই দেখুন তারা মিলে গেছে।

সমাবেশে বক্তব্য দেয়ার মাঝখানে কাদের বলেন, শাহে আলম কই, মেয়র সাহেব কই, এদিকে আসো সাইদ খোকন-মুরাদ। এই দেখুন এক হয়ে গেছে। সামান্য ভুল বুঝাবুঝি ছিলো, এক হয়ে গেছে। মহানগর আওয়ামী লীগ এখন ঐক্যবদ্ধ, আজকে আমার এখানে আসার মূল উদ্দেশ্য নেতা মেয়র হানিফকে স্মরণ করতে গিয়ে ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগকে সবার সামনে তুলে ধরবো। সেই শপথই আপনাদের সামনে দিলাম।

এ সময় সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহম্মদ হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, দপ্তর সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ, যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী প্রমুখ।