রাজশাহীতে বঙ্গবন্ধু হাইটেক পার্ক নির্মান:জমির মালিকের সংবাদ সম্মেলন


ওবায়দুল ইসলাম রবি, রাজশাহী ব্যুরো:
অনিয়ম করে রাজশাহীতে বঙ্গবন্ধু হাইটেক পার্ক নির্মানে সংশ্লিষ্ট জমির মালিক সংবাদ সম্মেলন করেছে। ভুক্তভোগিদের দাবি তাদের ন্যায্য বিচার। বঙ্গবন্ধুর সন্মানে তাদের অভিযোগ না থাকলেও নিজস্ব সম্পদ গ্রাস করা কোন নীতি।

আজ শুক্রবার বিকেলে রাজশাহী প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগি আব্দুল জাব্বার শেখ ও শরিকরা এসব অভিযোগ কওে বলেন। ওই জমির বিষয়টি বিচারাধীন থাকায় হাইর্কোটের আপীল বিভাগ স্থাপনা নিমার্ণে নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। কিন্ত রাজশাহী বুলনপুর এলাকায় আইটি ভিলেজ বঙ্গবন্ধু হাইটেক পার্কের জন্য ব্যক্তি মালিকানাধিক ৪ দশমিক ১১ একর জমি অধিগ্রহণ না করেই স্থাপনার কাজ শুরু হয়েছে।

নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও হাইর্কোটের আদেশ সুস্পষ্টভাবে লঙ্ঘন করে নিমার্ণ কাজ চলছে। শুধু তাই নয় এব্যাপারে হাইকোর্টে মামলা বিচারাধীন থাকা সত্ত্বেও (মামলা নং ৮৪৯) আদালতের নির্দেশ অমাণ্য করে স্থাপনা নির্মাণ কাজ করা হচ্ছে। যা আদালতের আদেশের সুস্পষ্ট লংঘন।

বিষয়টি অবগত করে সর্বশেষ গত ১ নভেম্বর রাজশাহী অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) বরাবরে আবেদন করা হয়। এরপরও কোন কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয় নি। সংবাদসম্মেলনের মাধ্যমে অবিলম্বে তথ্য ও যোগাযোগ মন্ত্রনালয় এবং আইন মন্ত্রনালয়ের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়েছে।

লিখিত বক্তব্যে আব্দুল জাব্বার শেখ বলেন, রেকর্ডে ভ্রমাত্মকভাবে তফসিল জেলা রাজশাহী থানা সাবেক বোয়ালিয়া, হালপবা, মৌজা: নবীনগর, জেলনং ২১৩ হাল: ৫০, সি.এস. খতিয়ান নং ৩৯২ ও ৩৯৩ এসএ খতিয়ান নং ২৭৪, আরএস ৪ এর জমির পরিমাণ ৪ দশমিক ১১ একর সম্পত্তি বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে গণপূর্ত বিভাগ-২ নামে ৪ নং খতিয়ানে দেখানো হয়েছে। এই সম্পত্তি অধিগ্রহণ বা অধিগ্রহণবাবদ ক্ষতিপূরণ ব্যতিরেখেই নির্বাহী প্রকৌশলী গণপূর্ত বিভাগ-২, ২১/৫৮-৫৯ নং, ১৯১/৬২-৬৩, ২৮/৭৯-৮০, ৫৫/৭৯-৮০ কেসে অধিগ্রহণ দেখিয়ে স্থাপন কাজ শুরু করেছে।

কিন্তু প্রকৃতপক্ষে তফসিলে বর্ণীত সম্পত্তি অধিগ্রহণ হয় নি। এ সময় ভুক্তভোগি আব্দুল জাব্বার শেখ, তার ছেলে জাহাঙ্গীর আলম, ভাতিজা বাবুল হোসেনসহ এলাকার অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

◷ ৯:৩৭ অপরাহ্ন ৷ শুক্রবার, ডিসেম্বর ১, ২০১৭ দেশের খবর