• আজ ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

১০ লাখ মুসল্লির আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো দিনাজপুরে তিন দিনের ইজতেমা


শাহ্ আলম শাহী, স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর থেকেঃ বিশ্ববাসী’র শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে প্রায় ১০ লাখ মুসল্লি’র আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে দিনাজপুরে শেষ হলো ৩ দিনের তাবলিক জামায়াতের ইজতমা।

ঐতিহাসিক দিনাজপুর গোর-এ শহীদ বড় ময়দানে প্রায় ১০ লাখ মুসল্লি’র অংশগ্রহণে সর্ববৃহৎ আখেরি মোনাজাত শুরু হয় বেলা ১২টায়। ঢাকাস্থ কাকরাইল জামে মসজিদের পেশ ঈমাম মাওলানা মো. রবিউল ইসলাম।

আখেরি মোনাজাতে জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি, জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম, পুলিশ সুপার হামিদুল আলমসহ দেশ-বিদেশের প্রায় ১০ লাখ মুসল্লি অংশ নেয়। এর মধ্যে নারী ছিলো প্রায় এক তৃতীয়াংশ।

দিনাজপুর জেলার ১৩ উপজেলার ছাড়াও উত্তরাঞ্চলসহ দেশ-বিদেশের বেশ কিছু এলাকা থেকে তাবলীগ জামাতসহ সর্বস্তরের মুসল্লিবৃন্দ এই ইজতেমায় অংশগ্রহন করেছেন।
মুসল্লিদের অজু-গোসলের পানি সরবরাহের জন্য ৩০টি টিউবওয়েল, একটি সাবমারসেবল পাম্প, ৩টি মটর স্থাপন করা হয়।

এছাড়া নিরাপদ স্যানিটেশনের জন্য ৪শ’ টয়লেট তৈরা করা হয়। বিদেশী মেহমান ও তাবলীগ জামাতের বৃদ্ধ সাথীদের জন্য মাঠের পশ্চিম পাশে খাস কামরা (বিশেষ কক্ষ) তৈরী করা হয়। এই খাস কামরায় আগত বিদেশী মেহমান ও তাবলীগ জামাতের বৃদ্ধ সাথীরা অবস্থান নেন।

দিনাজপুর তাবলীগ জামাতের আমীর (জিম্মাদার) আলহাজ্ব মো. লতিফুর রহমান জানান, মানুষকে দ্বীনের পথে উদ্বুদ্ধ করার জন্য এই ইজতেমার আয়োজন। মানুষ কিভাবে আল্লাহর ইবাদত-বন্দেগীর দিকে রজু হবে, মানুষের মাঝে হক তথা সঠিক পথ কবুল করার যোগ্যতা তৈরী হবে, আখেরাতের জিন্দেগী বা মৃত্যুর পরর্বতী জীবন কেমন হবে এবং কিভাবে মানুষ আখেরাতমূখী হবে এ সব বিষয়ে এই ইজতেমায় বয়ান করা হচ্ছে। এজন্য স্থানীয় প্রশাসন নেয় কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

সময়ের কণ্ঠস্বর/রবি

◷ ৪:৪২ অপরাহ্ন ৷ শনিবার, ডিসেম্বর ২, ২০১৭ দেশের খবর, রংপুর, স্পট লাইট