সর্বনিম্ন রানের রেকর্ড গড়ল চিটাগং, নাসির-ঘূর্ণিতে সিলেটের বিশাল জয়!

৩:৩৫ অপরাহ্ন | রবিবার, ডিসেম্বর ৩, ২০১৭ খেলা, স্পট লাইট

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক: বিপিএলে সিলেট ১০ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে জয় পেয়েছে। ৬৮ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে কোনো উইকেটই হারায়নি সিলেট সিক্সার্স। খেলতে হয়েছে মাত্র ১১.১ ওভার। সিলেটের দুই ওপেনার মোহাম্মদ রিজওয়ান ও আন্দ্রে ফ্লেচার চিটাগংয়ের বোলারদের কোনো সুযোগই দেননি। রিজওয়ান ৩৬ ও ফ্লেচার ৩২ রানে অপরাজিত ছিলেন।

এর আগে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) পঞ্চম আসরের ৩৭তম ম্যাচে সিলেট সিক্সার্সের বোলারদের তোপের মুখে পড়ে ৬৭ রানে অলআউট হয়েছে। এবারের আসরে এটিই সর্বনিম্ন রানের রেকর্ড। ১২ ওভারে সব উইকেট হারিয়ে চিটাগং ভাইকিংসের ব্যাটস ম্যানরা তাদের ৬৭ রানেই ইনিংস গুটিয়ে নেয়। এদিন নাসির নির্ধারিত ৪ ওভার বল করে ৩১ রানে ৫টি উইকেট তুলে নেন।

তার আগে রবিবার বেলা ১টায় চিটাগং ভাইকিংসের মুখোমুখি হয়েছে সিলেট সিক্সার্স। যেখানে টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সিলেট অধিনায়ক নাসির হোসেন।

টিচাগাং প্রথমে ব্যাটিং করতে নেমে প্রথম ওভারেই পথ হারায় চিটাগং। নাসির হোসেনের করা প্রথম ওভারে ফিরে যান লুক রঞ্চি ও সৌম্য সরকার। চিটাগংয়ের তৃতীয় ওভারে আবার আঘাত হানেন নাসির। ফিরিয়ে দেন লুইস রিসকে। পরের ওভারে সিকান্দার রাজাকে ফেরান শরিফুল্লাহ। ৪৫ রানের মধ্যে তানভীর হায়দার ও স্টিয়ান ভ্যান জাইলকে ফিরিয়ে চিটাগংকে খাদের কিনারে নামিয়ে দেন নাসির। ৪ ওভারে ৩১ রান দিয়ে পাঁচ উইকেট নেন এই স্পিনার।

এরপর নাবিল সামাদ ও শরিফুল্লাহ মিলে গুটিয়ে দেন চিটাগং ভাইকিংসকে। নাবিল তিনটি ও শরিফুল্লাহ নেন বাকি দুটি উইকেট।

সাত দলের মধ্যে সিলেটের অবস্থানের কারনে এ ম্যাচটি তাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। কেননা লিগের বাকি ম্যাচে জয় পেলে, পাশপাশি রংপুর রাইডার্স যদি শেষ দুই ম্যাচে হেরে যায়। তবে শেষ চার নিশ্চিত করে প্লে-অফ খেলতে পারবে দলটি। নাসিরদের শেষ ম্যাচটি কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে।

অন্যদিকে চিটাগংয়ের এবারের মৌসুমে আর কোনো আশাই নেই। ১০ ম্যাচে মাত্র দুটিতে জয় পাওয়া দলটি সবার শেষে।