নোয়াখালী সুবর্ণচরে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ বন্ধ

৩:০৪ অপরাহ্ন | শুক্রবার, ডিসেম্বর ৮, ২০১৭ অপরাধ, চট্টগ্রাম, দেশের খবর

মোঃ ইমাম উদ্দিন সুমন, ষ্টাফ রিপোর্টারঃ নোয়াখালী সুবর্ণচরে বাল্যবিবাহের কবল থেকে মুক্ত হলেন এক স্কুল ছাত্রী। ঘটনাটি ঘটে সুবর্ণচর উপজেলার ২ নং চরবাটা ইনিয়নের দক্ষিণ চরবাটা গ্রামে।

২ নং চরবাটা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেন মোজাম জানান, উক্ত গ্রামের আজিজুল হক সর্দার বাড়ীর মো বোরহান উদ্দিনের মেয়ে , হাজী মোশাররফ হোসেন উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী মনিয়া বেগম (১৪) এর সাথে পার্শ্ববর্তি ৭ নং পূর্বচরবাটা ইউনিয়নের ছমিরহাট সংলগ্ন আব্দুল কাদের মিয়ার ছেলে প্রবাসী মো আলমগীর হোসেন রাশেদ(৩০) এর সাথে বিবাহের সব আয়োজন সম্পন্ন হয়, ৮ ডিসেম্বর শুক্রবার বেলা ২ টায় বৌভাত অনুষ্ঠানের কথা ছিল, কনের বাবা বোরহান উদ্দিন বিবাহের সব আয়োজন শেষ করে। বাল্যবিবাহ হচ্ছে এমন খবর পেয়ে সুবর্ণচর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু ওয়াদুদ কনের বাবাকে স্থানীয় চেয়ারম্যানের মাধ্যমে বিবাহ বন্ধের নির্দেশ দেন।

চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেন মেয়ের বাবাকে ডেকে বিবাহ বন্ধ এবং সব আয়োজন বন্ধের নির্দেশ দেন। এতে বাল্যবিবাহ থেকে মুক্তি পান স্কুল ছাত্রী মনিরা বেগম। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও স্থানীয় চেয়ারম্যানের এমন উদ্যোগকে এলাকাবাসী সংশ্লিষ্ঠ প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানান।

সুবর্ণচর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু ওয়াদুদ এর সাথে আলাপ কালে তিনি বলেন, প্রত্যন্ত গ্রাম গঞ্জে এখনো অনেকেই বাল্যবিবাহের কুফল সম্মদ্ধে জানা নেই, আমরা এব্যাপারে প্রশাসনিক ভাবে সব সময় সতর্ক আছি এবং সুবর্ণচর উপজেলায় একাধিক বাল্যবিবাহ বন্ধ করেছি। এই কার্যক্রম চলমান থাকবে।