মঠবাড়িয়ার মিরুখালী এসএসসি কেন্দ্র স্থগিত

৬:১৬ অপরাহ্ন | শুক্রবার, ডিসেম্বর ৮, ২০১৭ Uncategorized, অপরাধ, দেশের খবর, শিক্ষাঙ্গন

মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) প্রতিনিধি : মঠবাড়িয়ায় জেএসসি পরীক্ষায় অসাধুপায়ে বাহির থেকে উত্তর পত্রে লিখে দেয়া ও ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগে স্থানীয় মিরুখালী স্কুল এন্ড কলেজের আসন্ন এসএসসি কেন্দ্র স্থগিত করেছে বরিশাল শিক্ষা বোর্ড। এদিকে এসএসসি কেন্দ্র স্থগিতের খবরে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট বরিশাল শিক্ষা বোর্ড সূত্রে জানাগেছে, সদ্য সমাপ্ত জুনিয়ার স্কুল সার্টিফিকেট পরীক্ষায় উপজেলার মিরুখালী স্কুল এন্ড কলেজ কেন্দ্রের ইংরেজী প্রথম পত্রের পরীক্ষায় ওই কেন্দ্রের শিক্ষার্থী মাইনুল ইসলাম উত্তর পত্রের সাথে বাহির থেকে লিখে আনা অতিরিক্ত পত্র (লুচ সীট) গেঁথে দেয়। বরিশাল বোর্ড কর্তৃপক্ষ খাতা মূল্যায়নের সময় ওই শিক্ষার্থীর হাতের লেখার সাথে অতিরিক্ত উত্তর পত্রের অমিল হওয়ায় বিষয়টি পরীক্ষকের কাছে ধরা পড়ে। পরে বরিশালা শিক্ষাবোর্ডের স্মারক নং- বশিবো/পনি/এসএসসি/২০১৭/১৮০২, তারিখ ৫/১২/ ২০১৭ ইং বোর্ডের ওয়েবসাইটে ওই কেন্দ্র স্থগিতের আদেশ দেন।

কেন্দ্র সচিব ও ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অধ্যক্ষ আলমগীর হোসেন খান জানান, বোর্ডের ওয়েবসাইটে কেন্দ্র স্থগিতের আদেশ পেয়েছি। তিনি আরও জানান, শিক্ষার্থীরা কক্ষে বসে কি করে তা আমার জানার কথা নয়? তবে তিনি দাবী করেন ওই শিক্ষার্থী মাইনুল ইসলাম আমার স্কুলের ছাত্র।

বরিশাল মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়াম্যান প্রফেসর জিয়াউল হক পরীক্ষা কেন্দ্র স্থগিতের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ওই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মঠবাড়িয়া মহিউদ্দিন আহমেদ মহিলা ডিগ্রী কলেজের ৯ শিক্ষককে এমপিওভুক্তি করার নির্দেশ

মঠবাড়িয়ার মহিউদ্দিন আহমেদ মহিলা ডিগ্রী কলেজের ৯ জন শিক্ষককে এমপিওভুক্তির নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের বিচারপতি আশফাকুল ইসলাম ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের বেঞ্চ এ রায় দেন।

মঠবাড়িয়া মহিউদ্দিন আহমেদ মহিলা ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ আজীম-উল-হক বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
রিট আবেদনকারীর পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ সিদ্দিক উল্লাহ মিয়া।

রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আল আমিন সরকার। ওই কলেজের প্রভাষক প্রশান্ত কুমার মিত্র, মুহাম্মদ আবদুল কাইয়ুম, বদরুজ্জামান সিকদার, বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী, দীপংকর সিকদার, ফাতেমাতুজ্জোহরা, সিরাজুল হক, প্রনব চৌধুরী, জাহিদ হাসান এর করা রিট আবেদনে মহামান্য হাইকোর্ট এ রায় প্রদান করেন। ওই রায়ে আরও উল্লেখ করা হয় প্রনব চৌধুরী, জাহিদ হাসানের ১৭ বছরের বকেয়া বেতন এবং অন্য ৭ শিক্ষকের যোগদানের দিন থেকে বেতন প্রদানের নির্দেশ দেন।

অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া বলেন, বে-সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহ) শিক্ষক ও কর্মচারীদের বেতন-ভাতাদির সরকারি অংশ জনবল কাঠামো সম্পর্কিত নির্দেশিকা অনুযায়ী দেয়া হয়। এ নীতিমালা অনুযায়ী এমপিওভুক্তির শর্তপূরণ করলেই কর্তৃপক্ষ এমপিও দিয়ে থাকে।