নির্মম এক মৃত্যুর সাক্ষী হয়ে রইল কুষ্টিয়াবাসী!


❏ সোমবার, মার্চ ১৯, ২০১৮ অকালমৃত্যু প্রতিদিন, খুলনা, দেশের খবর

এস.এম.আবু ওবাইদা-আল-মাহাদী, কুষ্টিয়া : কুষ্টিয়া ভাঙাচুরা সড়কে চলতে গিয়ে একের পর এক সড়ক দূর্ঘটনায় ঝরে যাচ্ছে তরতাজা প্রাণ। এ দায় কার ? রাস্তায় মৃত্যুর মিছিল আর কত লম্বা হলে শুরু হবে রাস্তার কাজ? টনক নড়বে কর্তৃপক্ষের। একের পর এক মৃত্যুর পরেও যেন থামছে না মৃত্যুর মিছিল। আজও নির্মম এক মৃত্যুর সাক্ষী হয়ে রইল কুষ্টিয়াবাসী।

বৃদ্ধা মা অসুস্থ। তাকে ডাক্তার দেখাতে হবে। তাই অনেক টা সকালেই মা সুরাইয়া বেগমকে নিয়ে মোটরসাইকেল যোগে রওনা হয় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের উদ্যেশ্যে। কুষ্টিয়া ঝিনাইদহ মহাসড়কের ১১ মাইল চাতালের কাছে পৌঁছালে অপরদিক থেকে দ্রুতগামী একটি কাভার্ডভ্যান মোটরসাইকেল সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে মোটরসাইকেল চালক আকরাম হোসেন (৪২) ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে মাথা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত পেয়ে গুরুতর আহত হয়ে অচেতন হয়ে রাস্তার পাশে পড়ে থাকে মা সুরাইয়া বেগম (৬৮)।

নিহত আকরাম হোসেন সদর উপজেলার আব্দালপুর ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামের আব্দুর সাত্তারের ছেলে। তিনি মধুপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও ক্লাস্টার প্রধান ছিলেন। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

এদিকে শিক্ষক আকরাম হোসেনের মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষক ও ছাত্র ছাত্রীরা নিহত শিক্ষকে দেখতে হাসপাতালে ছুটে আসেন। এ সময় শিক্ষক- শিক্ষিকা ও ছাত্র ছাত্রীদের কান্নায় হাসপাতাল এলাকায় এক হৃদয়বিদায়ক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়। তাঁর মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।