হাতীবান্ধায় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে উঠলো ভয়ানক অভিযোগ !

১২:৩৮ পূর্বাহ্ন | বুধবার, জুলাই ২৫, ২০১৮ অপরাধ, দেশের খবর, রংপুর

মোঃ ইউনুস আলী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি :: ৪র্থ শ্রেণির বাবা হারা এক এতিম ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে উঠেছে বনমালী বর্মণ নামে এক লম্পট শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এর আগেও ঐ শিক্ষক ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের দায়ে ১ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা জরিমানা দিয়েছিলেন বলে এলাকাবাসী জানান। অভিযুক্ত বনমালী বর্মণ লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার ধওলাই জোড়াশাল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসাবে কর্মরত।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার (২৪ জুলাই) বিকেলে এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করে অভিযুক্ত ঐ শিক্ষকের বিচার দাবি করেছেন।

যৌন নির্যাতিত ঐ ছাত্রীর সাথে কথা বলে জানা যায়, ক্লাস শুরু হবার আগে স্কুলের ২য় তলায় বই রেখে নিচে নামার সময় শিড়িতে শিড়িতে একা পেয়ে ঐ প্রধান শিক্ষক তাকে জড়িয়ে ধরে তার শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে জানোয়ারের মত যৌন নিপীড়ন চালাতে থাকে। এসময় ঐ ছাত্রীর চিৎকার করলে প্রধান শিক্ষক বনমালী বর্মণ পালিয়ে যান। খবর পেয়ে এলাকাবাসী বিদ্যালয় মাঠে এসে এ ঘটনায় অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষকের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেন।

এ ঘটনার আগেও ১২-১৩ বছর আগেও বনমালী বর্মণ ঐ স্কুলের এক ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের দায়ে ১ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা জরিমানা দেন বলে এলাকাবাসী জানান।

এ বিষয়ে একাধিকবার যোগযোগ করেও প্রধান শিক্ষক বনমালী বর্মণের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি হিতেন্দ্র নাথ অধিকারী এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন জানান, এবিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা চেয়ারম্যানকে বিষয়টি অবগত করা হয়ে এবং আগামীকাল সকালে বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটি’র সিদ্ধান্ত মোতাবেক প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

হাতীবান্ধা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মনোরঞ্জন রায় জানান, বিষয়টি লোকমুখে শুনেছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

হাতীবান্ধা থানার ওসি ওমর ফারুক জানান, এ সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ এখন পর্যন্ত তিনি পাননি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।