রংপুরে সড়ক দুর্ঘটনা রোধে পুলিশের র‌্যালী

❏ বুধবার, সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৮ দেশের খবর, রংপুর

মেজবাহুল হিমেল, রংপুর প্রতিনিধি: সড়কে দুর্ঘটনা রোধেও মোটর সাইকেল চালকদের মধ্যে হেলমেট ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করতে জনসচেতনতা মূলক র‌্যালী ও প্রচারণা কার্যক্রম শুরু করেছে রংপুর জেলা পুলিশ।

আজ বুধবার দুপুরে (৫ সেপ্টেম্বর) রংপুর মহানগরীর পর্যটন মোটেল আরকে রোড মহাসড়কে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন রংপুরের পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান পিপিএম।

এ সময় তিনি বলেন, মোটর সাইকেল চালকের মধ্যে হেলমেট ব্যবহারে শতভাগ সফলতা না আসা পর্যন্ত ‘নো হেলমেট-নো পেট্রল’ কর্মসূচী অব্যহত থাকবে। সড়কে শৃঙ্খলা আনতে মোটর সাইকেল চালকদের সচেতন করা হচ্ছে। পাশাপাশি সড়কে ফিটনেসবিহীন ভারী যানবাহন ও ধীর গতির গাড়ির কাগজপত্র পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হচ্ছে। ট্রাফিক আইন অমান্য কারীদের ব্যাপারে নো কম্প্রোমাইস নীতিতে মাঠে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা চলছে। কাউকে আর ছাড় দেয়া হবে না।

এ সময় সেখানে রংপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) আবু মারুফ হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এ সার্কেল) সাইফুর রহমান সাইফ, রংপুর কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোকতারুল আলম, ট্রাফিক ইনচার্জ খান মোঃ মিজানুর ফাহমি, পেট্রল পাম্প মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা সোহরাব চৌধুরী টিটুসহ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এসপি মিজানুর রহমান বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে মোটর সাইকেল চালক ও আরোহী। মোটর সাইকেল দুর্ঘটনার সময় দেখা যায় ক্ষতিগ্রস্থদের বেশির ভাগের মাথায় হেলমেট নেই। আমরা চাই দুর্ঘটনা রোধ ও ক্ষতির পরিমাণ কমাতে মোটর সাইকেল চালকরা বাধ্যতামূলক হেলমেট ব্যবহার করুক।

তিনি আরো বলেন, মোটর সাইকেল চালকদের মধ্যে ‘নো হেগলমেট-নো পেট্রল’ উদ্যোগটি সাড়া ফেলেছে। সড়কে এখন হেলমেট পরিহিত মোটর সাইকেল চালকের সংখ্যা বেড়েছে। এই সচেতনতা সবার মধ্যে ছড়িয়ে দিতে পুলিশ প্রশাসন জনসচেতনতা মূলক বিভিন্ন কর্মসূচী হাতে নিয়েছে।

এর আগে সকালে গরীর বিভিন্ন পাম্পে মোটর সাইকেল চালক ও অরোহীকে ফুল, সচেতনতামূলক লিফলেট ও স্টিকার দেয়া হয়। এছাড়া পাম্পে পাম্পে ‘নো হেলমেট-নো পেট্রল’ লেখা সম্বলিত ব্যানার, সাইনবোর্ড ও ফেস্টুন লাগানো হয়।