🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ মঙ্গলবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৮ মে, ২০২১ ৷

দিনাজপুরে আওয়ামী লীগে যোগদানের হিড়িক


❏ শনিবার, ডিসেম্বর ২২, ২০১৮ রংপুর

আলম শাহী, স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর থেকেঃ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে দিনাজপুরে বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগদানের হিড়িক পড়েছে। গত ১৫ দিনের ব্যাবধানে বিএনপি ও তার অঙ্গ সংগঠনের প্রায় ১০ হাজার নেতা-কর্মী যোগ দিয়েছেন আওয়ামীলীগে।

এ বিষয়টি যেমন ভালো দিক তেমনি খারাপ দিক বিবেচনা করছে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। আওয়ামীলীগের জন্য সুখবর হলেও ভোটের রাজনীতিকে কতটুকু প্রভাব ফেলবে তা দেখার বিষয়। আগামী ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত তা অপেক্ষা করতে হবে বলে জানিয়েছেন, রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

আওয়ামী লীগের প্রার্থী দিনাজপুর-৩ (সদর) আসনে বর্তমান এমপি হুইপ ইকবালুর রহিমের মধ্যমে গত ১৫ দিনের ব্যাধানে আওয়ামীগে যোগদান করেছে কমপক্ষে পাঁচ হাজার বিএনপি ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মী। এর মধ্যে শ্রমিক দলের নেতা জেলা মোটর পরিরহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ দুই হাজার শ্রমিক আনুষ্ঠানিকভাবে এমপি হুইপ ইকবালুর রহিমের মাধ্যমে যোগ দেয় আওয়ামী লীগে।

এছাড়াও কয়েকজন পৌর কাউন্সিলরসহ আরো ৪ হাজার নেতা-কর্মী যোগ দেন আওয়ামীলীগে। তারা প্রত্যেকেই বিএনপি বা তার অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মী।

অন্যদিকে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক দিনাজপুর- ২(বিরল-বোচাগঞ্জ) আসনের এমপি খালিদ মাহমুদ চৌধূরী’র মাধ্যমে গত ১৫ দিনের ব্যবধানে বিএনপি ও তার অঙ্গ সংগঠনের কমপক্ষে ৩ হাজার নেতা-কর্মী যোগ দিয়েছেন আওয়াম লীগে।

এছাড়াও দিনাজপুর-৫ আসনের এমপি প্রাশমিক ও গুশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান ফিজারের মাধ্যমে প্রায় ৩ হাজার, দিনাজপুর-৪ আসনের এমপি পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাসান মাহমুদের মাধ্যমে ২ হাজার এবং দিনাজপুর-৫ আসনের এমপি সিবলী সাদিকের মাধ্যমে প্রায় াকে হাজার বিএনপি ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মী যোগ দিয়েছে আওয়ামীলীগে।

বিএনপি’র ধবংস রাজনীতি থেকে আওয়ামী লীগের উন্নয়নের রাজনীতিকে বিএনপি’র নেতা-কর্মীরা যোগ দিচ্ছে বলে জানাচ্ছেন আওয়ামী লীগের নেতারা। বর্তমানে নৌকার জোয়ারের স্রোতে তারা যোগ দিচ্ছে, সরকারের উন্নয়নের ধারাকে গতিশীল করতে এমনি মন্তব্য আওয়ামী লীগ নেতাদের।

কিন্তু, বিএনপি’র নেতারা বলছেন, ধর-পাকড়াও আর গ্রেফতার-নির্যাতন এড়াতে বিএনপি’র কিছু নেতা-কর্মী আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছে। প্রকৃত পক্ষে তারা বিএনপি’র রয়েছে। উপরে নৌকা বললেও ভেতরে ভেতরে ধানের শীর্ষ। ৩০ তারিখেই তা বলে দিবে তারা কার। ধানের শীর্ষে বিজয় নিশ্চিত বলে তারা দাবী করেছেন।