ভোটকেন্দ্রে হিরো আলমের ওপর হামলার ভিডিও ভাইরাল


❏ রবিবার, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৮ আলোচিত বাংলাদেশ

রবিউল ইসলাম (রবি), সময়ের কণ্ঠস্বর- বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল ইসলাম আলম ওরফে হিরো আলম তার ওপর হামলার অভিযোগ এনে নির্বাচন বর্জন করেছেন।

রোববার বিকেলে শহরতলির হোটেল নাজ গার্ডেনে এক সংবাদ সম্মেলনে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন সিংহ প্রতীকের এ স্বতন্ত্র প্রার্থী।

এর আগে কেন্দ্র পরিদর্শনে গিয়ে রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নন্দীগ্রাম উপজেলার চাকলমা ভোট কেন্দ্রে অতর্কিত হামলার শিকার হন হিরো আলম। একপর্যায়ে তাকে মারধর করে কেন্দ্র  ছাড়তে বাধ্য করা হয়।

হামলার ওই ভিডিও ধারণ করতে গেলে হিরো আলমের সঙ্গে থাকা সাংবাদিকদের ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়ারও চেষ্টা করে হামলাকারীরা। এসময় সময়ের কণ্ঠস্বরের বগুড়া করেসপন্ডেন্ট নজরুল ইসলাম সামান্য আহত হন।

এ ঘটনার পরে ভোট কেন্দ্র দখল, এজেন্টদের বের করে দেয়া এবং মারপিট করে কেন্দ্রে প্রবেশ করতে না দেয়াসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ এনে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন হিরো আলম।

এদিকে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেওয়ার পরপরই ডিস ব্যবসায়ী থেকে তারকা বনে যাওয়া এই প্রার্থীর ওপর হামলার একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

১ মিনিট ৬ সেকেন্ডের ওই ভিডিওতে দেখা যায়, হিরো আলম তার কয়েকজন কর্মীকে নিয়ে একটি কেন্দ্রের দিকে যেতে চাইলে কয়েকজন তাদের দিকে তেড়ে আসে। দু’পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির এক পর্যায় ওই ব্যক্তিরা হিরো আলমকে মারধর করে কেন্দ্রের বাইরে বের করে দেয়। হামলাকারীদের মধ্যে একজনকে স্যান্ডেল খুলে মারধর করতে দেখা গেছে।

আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এই হামলা করেছে দাবি করে সংবাদ সম্মেলনে হিরো আলম বলেন, নৌকার সমর্থক ছাড়া কাউকে কেন্দ্রে প্রবেশ দেয়নি আওয়ামী লীগের লোকজন।

তার ওপর হামলার পর নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ করার সুযোগ পর্যন্ত তাকে দেয়া হয়নি বলেও ক্ষোভ প্রকাশ করেন বগুড়ার আলোচিত এ স্বতন্ত্র প্রার্থী।

তিনি বলেন, সকাল থেকে বিভিন্ন কেন্দ্রে আওয়ামী লীগের লোকজন ভোটারদের বের করে দিয়েছে। নির্বাচনী এজেন্টদের বের করে দিয়েছে। নির্বাচনে নন্দীগ্রামে তাঁর ওপর হামলা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাকে কোনো সহায়তা করেনি।

ভিডিও দেখুন এখানে-