তানোরে নেতাকর্মী ও সমর্থকদের ভালোবাসায় সিক্ত হলেন ফারুক চৌধুরী

❏ বুধবার, জানুয়ারী ২, ২০১৯ রাজশাহী

অসীম কুমার সরকার, তানোর (রাজশাহী) প্রতিনিধি: হাজার হাজার নেতাকর্মী ও সমর্থকদের ভালোবাসায় শিক্ত হলেন মুক্তিযুদ্ধকালীন প্রবাসী সরকারের মন্ত্রী জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এএইচএম কামরুজ্জামানের ভাগ্নে, রাজশাহী জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও রাজশাহী-১ (তানোর-গোদাগাড়ী) আসনে টানা তৃতীয়বারের মতো নৌকা প্রতীকে বিজয়ী আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধুরী এমপি।

মঙ্গলবার সকাল থেকে রাত পর্যন্ত তানোর-গোদাগাড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগ, অঙ্গ সংগঠনের হাজার হাজার নেতাকর্মী, সমর্থক, জনসংগঠন ও বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ তার বাস ভবনে জমায়েত হতে থাকেন। এ সময় নেতাকর্মীরা একে অপরকে মিষ্টি খাইয়ে শুভেচ্ছা বিনিময় ও ফুলের শুভেচ্ছায় সিক্ত করেন প্রিয় নেতা ওমর ফারুক চৌধুরীকে।

এদিকে বিকেলে তিনি রাজশাহী নগরীর কাদিরগঞ্জ এলাকায় জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা ও মোনাজাত করেন।

মোনাজাত শেষে ফারুক চৌধুরী তার প্রতিক্রিয়ায় জানান, তানোর-গোদাগাড়ীর জনগন মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে নৌকায় ভোট দিয়ে প্রমাণ করেছে তারা জঙ্গীবাদ রাষ্ট্র চায় না। গত এক দশকে আওয়ামীলীগ সরকার ব্যাপক উন্নয়ন করেছে। তার উন্নয়নের ধারাবাহিকতা এখনো চলোমান। তিনি অসমাপ্ত কাজগুলো দ্রুত শেষ করতে চান।

চৌধুরী আরো বলেন, জঙ্গীবাদ শক্ত হাতে দমন করা হবে। আর তানোর-গোদাগাড়ী মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় আর্দশের নগরী হিসেবে গড়ে তুলবো।

এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন – জেলা আওয়ামীলীগ যুগ্ম সম্পাদক কামরুজ্জামান চঞ্চল, জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ সাবেক যুগ্ম আহবায়ক শরিফ তুহিন, গোদাগাড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি বদিউজ্জামান, তানোর উপজেলা আওয়ামীলীগ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল-মামুনসহ বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সদ্য সমাপ্ত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ফারুক চৌধুরী পেয়েছেন ২ লাখ ৩ হাজার ৪৭৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ধানের শীষের ব্যারিস্টার আমিনুল হক পেয়েছেন ১ লাখ ১৮ হাজার ৯৮ ভোট।