সৈয়দ আশরাফকে শেষবারের মতো দেখতে মানুষের ঢল

৯:৩২ অপরাহ্ন | শনিবার, জানুয়ারী ৫, ২০১৯ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর: আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক এবং সাবেক জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামকে শেষবারের মতো দেখতে তার বেইলি রোডের বাসায় ভিড় করেছেন তাঁর শুভাকাঙ্ক্ষরা। শনিবার (৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যার পর থেকেই আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী, বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, পেশাজীবী সংগঠনের নেতাকর্মীসহ আশরাফের অনুসারীরা বেইলি রোড ২১ নম্বর বাসার আশপাশে জড়ো হন।

শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেছেন, ‘খুবই অসাধারণ একজন মানুষ ছিলেন। রাজনীতিবিদ তো বটেই, দলের দুঃসময়ে নেত্রী যখন কারাগারে ছিলেন, তখন যেভাবে সাহস নিয়ে তিনি দাঁড়িয়েছিলেন, সেটি আমাদের দলের ইতিহাসে গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় হয়ে থাকবে। তিনি অসাধারণ জ্ঞানসম্পন্ন মানুষ ছিলেন।’

তিনি বলেন, ‘আমি যখন নাটক নিয়ে আলোচনা করি, তখন নাটকের বিভিন্ন বিষয়ে, সাহিত্য নিয়ে আলোচনা যখন করেছি তখন বাংলা সাহিত্য থেকে শুরু করে নানা বিষয়ে আলোচনা করেছেন। একজন পরিপূর্ণ রাজনীতিবিদ হতে হলে যেসব বিষয়ে জ্ঞান থাকতে হয়, সেটা সৈয়দ আশরাফকে না দেখলে বুঝতাম না।’

৩ জানুয়ারি ব্যাংককের একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন সৈয়দ আশরাফ। শনিবার (৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় তার মরদেহ ঢাকায় আসে। সন্ধ্যা ৭টায় এ মরদেহ অ্যাম্বুলেন্সযোগে আশরাফের বেইলি রোডের বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়।

বেইলি রোডের সরকারি বাসভবন থেকে নিয়ে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের (সিএমএইচ) হিমাগারে রাখা হবে আশরাফের মরদেহ। রোববার (৬ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টায় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় মরহুমের প্রথম নামাজে জানাজা সম্পন্ন হবে। এরপর হেলিকপ্টারে করে সৈয়দ আশরাফের মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে তার জেলা কিশোরগঞ্জে। দুপুর ১২টায় কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া মাঠে সৈয়দ আশরাফের দ্বিতীয় জানাজা হবে।

এরপর তৃতীয় নামাজে জানাজা দুপুর ২টায় ময়মনসিংহের আঞ্জুমান ঈদগাঁ মাঠে সম্পন্ন হবে। সেখান থেকে মরদেহ ঢাকায় নিয়ে এসে বাদ আসর বনানী কবরস্থানে দাফন হবে সৈয়দ আশরাফকে।