চাটমোহরে অগ্নিদগ্ধ হয়ে গৃহবধুর মৃত্যু

৬:০১ অপরাহ্ন | রবিবার, জানুয়ারী ৬, ২০১৯ অকালমৃত্যু প্রতিদিন, দেশের খবর

আব্দুল লতিফ রঞ্জু, পাবনা প্রতিনিধি: পাবনার চাটমোহরে অগ্নিদগ্ধ হয়ে মুক্তি খাতুন (৪৫) নামে এক মানসিক প্রতিবন্ধী গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। রবিবার দুপুরে ঢাকার বারডেম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।
নিহত গৃহবধূ মুক্তা পৌর সদরের বালুচর মহল্লার রফিকুল ইসলাম হেলালের স্ত্রী। দির্ঘদিন যাবৎ সে মানসিক রোগে ভূগছিলেন বলে প্রতিবেশীরা জানায়।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, শনিবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘরের বাইরে যায় গৃহবধূ মুক্তি। এর কিছু সময় পরে তার চিৎকার শুনে পরিবারের সবাই ঘর থেকে বেরিয়ে দেখেন তার শরীরে আগুন জ¦লছে। সবাই দ্রুত তার শরীরের আগুন নিভিয়ে ফেললেও ইতিমধ্যে শরীরের অনেকাংশ পুড়ে যায়। রাতেই তাকে চিকিৎসার জন্য ঢাকা বারডেম হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রবিবার দুপুরে তার মৃত্যু হয়।

পরিবারের সদস্যদের ধারণা সে দীর্ঘদিন যাবত মানসিক রোগে আক্রান্ত থাকায় আত্মহত্যার উদ্দেশ্যে নিজের শরীরে আগুন ধরিয়ে নিতে পারে।

চাটমোহরে কৃষকের তিনটি গরু চুরি

পাবনা প্রতিনিধি ঃ পাবনার চাটমোহর উপজেলার মূলগ্রাম ইউনিয়নের মহরমখালী গ্রামে এক কৃষকের তিনটি গরু চুরির ঘটনা ঘটেছে। রবিবার ভোর রাতে নিজ বাড়ির ঘোয়াল ঘর থেকে এ চুরির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এলাকার কৃষকদের মধ্যে গরু চুরির আতংক বিরাজ করছে।

জানা গেছে, অন্যান্য দিনের মতোই শনিবার রাতে মহরম খালী গ্রামের কৃষক জালাল উদ্দিন তার গোয়াল ঘরে গরু বেঁধে রেখে ঘুমাতে যান। মাঝরাতেও তিনি গোয়ালে গরু দেখেন। কিন্তু ভোরে ঘুম থেকে উঠে দেখেন গোয়ালে বেধে রাখা একটি গাভী ও দুটি বকনা বাছুর গোয়ালে নেই। বিভিন্ন যায়গায় খোঁজ খবর করেও গরু গুলোর সন্ধান পাওয়া যায় নি। গরু গুলোর আনুমানিক মূল্য প্রায় ২ লাখ টাকা বলে জানান ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক জালাল উদ্দিন।

চাটমোহর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ নাসীর উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় কেউ থানায় কোন অভিযোগ করে নি।