সংবাদ শিরোনাম

রোহিঙ্গা শিশু অপহরণের পর হত্যার ঘটনায় নারীসহ দু’জন গ্রেপ্তারবেলকুচিতে দূর্বৃত্তদের আগুনে পুড়ে গেল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান !জামালপুরে মাদ্রাসা ছাত্রীকে রাতভর ধর্ষণ, গ্রেফতার মাদ্রাসার শিক্ষক‘করোনাকালের নারী নেতৃত্ব: গড়বে নতুন সমতার বিশ্ব’বগুড়ায় শিক্ষা প্রনোদনা পেতে প্রত্যয়নের নামে টাকা নেয়ার অভিযোগজামালপুরে ধর্ষণ মামলায় ধর্ষকের যাবজ্জীবনপাবনায় অবৈধ অস্ত্র তৈরির কারখানায় অভিযান, চারটি আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেফতার-২উপজেলা আ.লীগের সভাপতিকে ‘পেটালেন’ কাদের মির্জা!কে কত বড় নেতা, সবাইকে আমি চিনি: কাদের মির্জাঅনুদান দেওয়া হবে, তবে প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে নয়: শিক্ষা মন্ত্রণালয়

  • আজ ২৪শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

রাজধানীর বিভিন্নস্থানে শ্রমিকদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ, টিয়ারশেল নিক্ষেপ

১:২৭ অপরাহ্ন | মঙ্গলবার, জানুয়ারী ৮, ২০১৯ আলোচিত

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- ন্যূনতম মজুরি বাস্তবায়নসহ বিভিন্ন দাবিতে রাজধানীর উত্তরা আবদুল্লাহপুর ও আজমপুরে তৃতীয় দিনের মতো আন্দোলন করছেন পোশাক শ্রমিকরা।

মঙ্গলবার সকাল ৯টায় আজমপুরে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধের চেষ্টা করেন পোশাক শ্রমিকরা। এ সময় পুলিশ তাদের টিয়ারশেল নিক্ষেপ করলে শ্রমিকরা রেললাইনের ওপর অবস্থান নেয়। পোশাক শ্রমিকরা ওই এলাকায় দুটি গাড়ি ভাঙচুর করেন।

সকালে মিরপুরের কালশীতেও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ারশেল ছুড়ছে পুলিশ। রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ করায় সেখানে শুরু হয়েছে তীব্র যানজট। এতে ভোগান্তিতে পড়েছে সাধারণ মানুষ।

তৃতীয় দিনের মতো সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছে পোশাক শ্রমিকরা। মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে কয়েকশ গার্মেন্টস শ্রমিক মিরপুরের কালশি এলাকায় রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ শুরু করে।

মঙ্গলবার সকাল থেকে কালশীর ২২ তলা গার্মেন্টেসের পোশাক শ্রমিকরা রাস্তায় অবস্থান নেয়। তাদের অবস্থানের কারণে সড়কটিতে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পুলিশ তাদের সরিয়ে দিতে গেলে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। একবার সরে গেলেও পরে শ্রমিকরা আবার অবস্থান নেয়।

এদিকে রাজধানীর উত্তরার দক্ষিণখান থানার আটিপাড়া এলাকার এপিএস গার্মেন্টেসের শ্রমিকেরা ওই এলাকায় ভাঙচুর চালিয়েছে। এছাড়াও একই এলাকার শ্রমিকেরা জড়ো হচ্ছে।

শ্রমিকদের অভিযোগ, নতুন মজুরি কাঠামো বাস্তবায়নের দাবিতে তারা মূল সড়কে অবস্থান নিয়েছে। কারণ সরকার ঘোষিত নতুন বেতন কাঠামো নির্ধারণ করলেও মালিকপক্ষ তা দিচ্ছে না।