সেই জেলা প্রশাসকের স্ত্রী লিখলেন ‘আই লাভ ইউ নিখিল, প্রাউড অফ ইউ’


আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: বেশ ফলাও করে উত্তম-মধ্যম দেওয়া। যাকে বলে রাম ধোলাই। কেন? জেলাশাসকের স্ত্রী-কে নিয়ে নোংরা কথা বললে তো শাস্তি পেতেই হবে। এটা সমস্ত লোকজন জানে না, আর ভারতের ফালাকাটার বিনোদ সরকার জানবে না! এসব কথা শুনলে হবে। তাই যে জানে না তাঁকে একবার দেখিয়ে দেওয়া ক্ষমতার বহর কাকে বলে।

জেলা প্রশাসকের বিরুদ্ধে যাওয়া! ‘নারীশক্তির জয় হোক’। আলিপুরদুয়ারের ফালাকাটা থানায় আটক যুবককে বেদম মারধরের ঘটনায় এখন এমনই পোস্ট সামনে এসেছে। এমনকী আলিপুরদুয়ারের জেলা প্রশাসক নিখিল নির্মলের স্ত্রী, যাকে ঘিরে এতকাণ্ড তিনিও স্বামীর পক্ষে গুণগান করে পোস্ট করেছেন। যা এই মহূর্তে ভারতের নেট দুনিয়ায় ছেঁয়ে গেছে।

ফেসবুক-এ নিজের ওয়ালে নন্দিনী পোস্ট করে লিখেছেন, আজেবাজে অনেক বকা হয়েছে, যদি হঠাতেই তাহলে হঠিয়ে দাও, কিন্তু কারো সন্তান ও স্ত্রী-কে নিয়ে একজন পারিবারিক মানুষকে বিরক্ত করো না… তোমরা কি জানো কি হয়েছে? ভিডিও-তে কী দেখা যাচ্ছে? ইচ্ছে করেই ওখানে যেগুলো দেখানো হচ্ছে… যে টা হয়েছে সেটা কেউ দেখালো না। ব্লাডি হেল। হ্যাঁ, …টাকে লাথি-থাপ্পড় মেরেছি… অন্য কেউ হলে এই ধরনের লোকগুলো-কে মেরেই ফেলত… আমার স্বামী আমার সঙ্গে সাতপাক নেওয়ার সময় বলেছিল, আমি তোমার খেয়াল রাখব… তোমাকে রক্ষা করব, তোমার পক্ষ নেব… যা হয়ে যাক… এবং ও করে দেখিয়েছে… আমি ওর জন্য গর্বিত…ও আসলে সত্যিকারের নায়ক…কেউ যদি আপনার বোন, মেয়েকে বলে…. তাহলে এটা চলবে তো? আপনারা নিখিলের (জেলা প্রশাসক) প্রতি এমন ভাব দেখাচ্ছেন যেন বোঝাতে চাইছেন ধর্ষণ তো করেনি?… ব্যাস আর ভাই ওতে শুধু কমেন্ট করেছ… থাপ্পড়টা মারা উচিত ছিল, তাই না? আরে গোল্লায় যাক এমন সমাজ, লোক যারা নিজের করা শপথকে মূল্য দেয় না…চাকরি আছে নেই চলে যাক, কিন্তু ভালোবাসা আছে এটাই সবচেয়ে বড় ব্যাপার, আই লাভ ইউ নিখিল, প্রাউড অফ ইউ, তোমার স্ত্রী/বেস্ট ফ্রেন্ড/ গার্লফ্রেন্ড/ এবং তোমার দুই সন্তানের মা হতে পেরে আমি ভাগ্যবান। মরে গেলেও তোমার দিকে কাউকে আঙুল তুলতে দেব না… এর জন্য আমাকে জীবন দিতে হলেও তা দেব, তোমার সামনে আমি প্রাচীর হয়ে দাঁড়াব, যেভাবে সবসময় দাঁড়াই…’

ফালাকাটা থানায় আটককে মারধরের যে ভিডিও ভাইরাল হয়েছে তাতে সায়নী সরকার নামেও এক তরুণীকে দেখা গিয়েছে। তিনি ফেসবুকে অভিযোগ করেছেন বিনোদ যে সোশ্যাল মিডিয়া গ্রুপে আজেবাজে কথা লিখেছিল সেখানে আরও ১০জন মহিলা রয়েছেন। অশ্লীল কথা লেখার সময় এই সব মহিলাদেরও কথা ভাবেননি বিনোদ।

প্রসঙ্গত, গতকাল ভারতের আলিদুয়ারপুর জেলা প্রশাসকের স্ত্রীকে ফেসবুকে কটুক্তির অভিযোগে এক যুবককে পুলিশ গ্রেপ্তার করে থানা আনে। পরে সেখানে পুৃলিশের উপস্থিতিতেই সেই যুবককে বেদম মারধর করেন সেই জেলা প্রশাসক। যার একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে সেই জেলা প্রশাসকের কড়া সমালোচনা শুরু করেন দেশটির সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীরা।

◷ ৪:২৩ অপরাহ্ন ৷ মঙ্গলবার, জানুয়ারী ৮, ২০১৯ আন্তর্জাতিক