নতুন বউয়ের হাত ধরে পালালো পুলিশ সদস্য, বাড়িতে অনশনে প্রেমিকা!

৩:০০ পূর্বাহ্ন | সোমবার, জানুয়ারী ১৪, ২০১৯ আলোচিত

সময়ের কণ্ঠস্বর, সিলেট :: পেশায় তিনি পুলিশ। দীর্ঘ তিন বছর প্রেম করে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রেমিকাকে বাড়ি নিয়ে এসে তাকে বিয়ে না করে বিয়ে করেছেন এক নাবালিকাকে। আর এতেই ক্ষেপেছেন প্রেমিকা। অবস্থান নিয়েছেন প্রেমিকের বাড়ির সামনে।

সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলায় ঘটেছে এমন ঘটনা। প্রেমিক সোলেমান মিয়া (২০) গোয়াইনঘাট উপজেলার পূর্ব জাফলং ইউনিয়নের নয়া গাঙেরপাড় গ্রামের আব্দুর রহমানের পুত্র। পেশায় তিনি একজন পুলিশ কনস্টেবল। তিনি হবিগঞ্জ পুলিশ লাইনসে কর্মরত আছেন বলে জানা গেছে। প্রেমিকা একই গ্রামের আবু তাহেরের মেয়ে সাবিনা বেগম (১৮)। তিনি জৈন্তাপুরের ইমরান আহমদ মহিলা কলেজের ছাত্রী।

ঘটনার ব্যাপারে সাবিনা জানান, সোলেমান মিয়া ও তার মধ্যে দীর্ঘ তিন বছর ধরে প্রেম চলে আসছিল। গত ৯ জানুয়ারি আমাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নিজ বাড়িতে নিয়ে আসেন সোলেমান। কিন্তু ১০ জানুয়ারি েআমাকে বিয়ে না করে জাফলং ইউনিয়নের আসামপাড়া গ্রামের মখলিছুর রহমানের মেয়ে ফাতেমা (১৬) নামের এক নাবালিকাকে বিয়ে করেন তিনি। ফাতেমা হাজী সোহরাব আলী স্কুল এন্ড কলেজের নবম শ্রেণীর ছাত্রী।

এদিকে বিয়ের লোভ দেখিয়ে নিজ বাড়িতে নিয়ে এসেও বিয়ে না করে প্রতারণা করায় ক্ষোভে প্রেমিকা সাবিনা তাকে বিয়ের দাবীতে প্রেমিক সোলেমানের বাড়ীর সামনে অবস্থান নিয়েছেন। গত তিন দিন ধরে তিনি প্রেমিকের বাড়ির সামনে অবস্থান করছেন। তিনি ও তার স্বজনেরা অভিযোগ করেছেন সোলেমান পুলিশ সদস্য হওয়ায় প্রতিনিয়ত হুমকি দিচ্ছেন তাদের।

এ বিষয়ে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) সদস্য শাহআলম মিয়া বলেন, বিষয়টি আমি জানার পর ওই বাড়িতে গিয়ে বিয়ের দাবিতে অনশনরত মেয়েটির সাথে কথা বলেছি। মেয়েটিকে বোঝানোর চেষ্টা করেছি। কিন্তু সে তার সিদ্ধান্তে অটুট রয়েছে।

তবে, বিষয়টি সম্পর্কে এখনো অবগত নন গোয়াইনঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল জলিল। তিনি বলেন, অভিযোগ পেলে বিষয়টি তদন্ত করে দোষীদের আইনের আওতায় আনা হবে।