প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষর হুবহু জাল করা কে এই হেলালউদ্দিন?

৩:৪৫ অপরাহ্ন | মঙ্গলবার, জানুয়ারী ১৫, ২০১৯ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বাক্ষর হুবহু জাল করে কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে সোমবার রাতে তিনজনসহ মোট ছয়জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। চক্রের মূলহোতা হেলাল উদ্দিন প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষর হুবহু জাল করতেন।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে মালিবাগের সিআইডি কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার (সিরিয়াস অ্যান্ড হোমিসাইডাল স্কোয়াড) সৈয়দা জান্নাত আরা।

আসামিদের মধ্যে তিনজনকে গত বছরের ২৯ নভেম্বর এবং বাকি তিনজনকে গতকাল সোমবার রাতে গ্রেফতার করা হয়। ২৯ নভেম্বর গ্রেফতার তিনজন হচ্ছেন- মো. হেলাল উদ্দিন (৫৫), মো. এনামুল হক (৪৮), নাজমুল হাবিব (৫৪)। তবে তদন্তের স্বার্থে সোমবার রাতে গ্রেফতার আসামিদের নাম প্রকাশ করা হয়নি।

এসময় জানানো হয়, গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জাল স্বাক্ষরসহ বাংলাদেশ ব্যাংকের গর্ভনর, দুদক চেয়ারম্যান, এনবিআরের চেয়ারম্যান, এনএসআইয়ের প্রধানের স্বাক্ষর জালের প্যাডের পাতা, প্রধানমন্ত্রীকে জড়িয়ে হেলালের বিভিন্ন মানহানীকর কথাবার্তার ভিডিও ক্লিপ ও প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত পাঁচটি মোবাইল জব্দ করা হয়।

সৈয়দা জান্নাত আরা বলেন, হেলাল উদ্দিন জাল স্বাক্ষর চক্রের মূলহোতা। তিনি প্রধানমন্ত্রীর জাল স্বাক্ষর তৈরি করতেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের লোগো ও চিঠি এক কম্পিউটারের দোকান থেকে মাত্র ৫০০ টাকার বিনিময়ে প্রিন্ট করিয়ে তারা প্রধানমন্ত্রীর ভাবমূর্তি নষ্ট করার লক্ষ্যে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে জালিয়াতি করতেন।

তিনি বলেন, আসামিদের গ্রেপ্তারের পর জানা যায়, এই জালিয়াত চক্রটি বাংলাদেশ ব্যাংকে থাকা ৫৪ হাজার কোটির টাকার ভুয়া যাচাই কপি তৈরি করে মানুষের বিশ্বাস অর্জন করতো। এই ৫৪ হাজার কোটি টাকা বাংলাদেশ ব্যাংকে কথিত ফরিদুজ্জামান সেলিমের একাউন্টে আছে। সে ফ্রান্সের এল. সি. এল ব্যাংক হতে বাংলাদেশ ব্যাংকে টাকাটি পাঠায়। যা কিনা পুরোটাই ভুয়া। এভাবে সে ৪২ লাখ টাকা আত্মসাৎ করে।

‘‘চক্রটি সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের উন্নয়নের কথা টাগের্ট মানুষকে জানাত, প্রয়োজন মাফিক তারা প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষরসহ কার্যালয়ের প্যাডে ওই প্রকল্পের কাজের আদেশনামা দেখাতো এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের ৫৪ হাজার কোটির টাকার যাচাই কপি দেখাত।’’