কর্ণফুলীর কেইপিজেড অংশে দুটি বুনো হাতির উৎপাত, নিরাপত্তায় উদ্বিগ্ন নিরাপত্তা কর্মীরা

◷ ৪:০২ অপরাহ্ন ৷ মঙ্গলবার, জানুয়ারী ১৫, ২০১৯ চট্টগ্রাম

জে. জাহেদ, চট্টগ্রাম ব্যুরো: কর্ণফুলী ও আনোয়ারা উপজেলার মাঝামাঝি কেইপিজেডের দক্ষিণাংশে দুটি বুনো হাতির উৎপাতে রাতভর জেগে সর্তক পাহারায় ছিল কোরিয়ান কোম্পানী কেইপিজেডের নিরাপত্তা কর্মীরা।

পাহারায় থাকা কর্মীরা জানায়, কয়েক দিন আগে জঙ্গল থেকে দুটি বন্য হাতি বেরিয়ে আসে লোকালয়ের দিকে। পরে কেইপিজেডের ভেতরের সড়কের উপর দাড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। রাতে প্রচন্ড গর্জন করে বনে তান্ডব চালাতেও শোনেন কর্মীরা।

এতে আতংকিত হয়ে পড়ে নিরাপত্তাকর্মী সহ সড়ক দিয়ে চলাচল করা কোরিয়ান স্টাফরা। হাতি দুটি লোকালয় ছেড়ে জঙ্গলে যেতে চাইছে না। নিরাপত্তারক্ষীরা চেষ্টা করেও তাড়াতে ব্যর্থ হন৷

বিষয়টি নিরাপত্তাকর্মীরা কোরিয়ান কর্তৃপক্ষকে জানান দিলে, তারাও নিরাপত্তায় উদ্ধিগ্ন হয়ে সংশ্লিষ্ট বন বিভাগসহ ফায়ারা সার্ভিস এবং স্থানীয় থানাকে বিষয়টি জানান।

ফলে চিন্তায় পড়ে কোরিয়ান কোম্পানীর কর্তৃপক্ষ ও সাধারণ মানুষ। কেন না এ সড়ক দিয়ে অনুমতি নিয়ে অনেক সাধারণ দর্শনার্থীরা আসা যাওয়া করে। সবচেয়ে বড় কথা আগামী ১৮ জানুয়ারী শুক্রবার বিকাল ২টায় ভূমিমন্ত্রীকে সংবর্ধনা দেওয়া হবে কেইপিজেড গেইটে।

এ বিষয়ে কেইপিজেডের মুখপাত্র এজিএম মুশফিকুর রহমান বলেন, ‘আমরা কয়েক দিন যাবত হাতি দুটি জঙ্গলে তাড়াতে অনেক চেষ্টা করেও ব্যর্থ হই। পরে সংশ্লিষ্ট সব দপ্তর ও বন বিভাগকে জানানো হয়েছে। তিনি আরো বলেন, ‘বনবিভাগ ইতিমধ্যে কাজ করছে আশা করি দ্রুত সময়ে নিরাপদ জোনে হাতি দুটিকে পাঠানো হবে।’

প্রসঙ্গত, কেইপিজেড কর্তৃপক্ষ পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্রের শর্ত অনুযায়ী মোট জমির ৫২ শতাংশ বৃক্ষরোপণ, জলাধার সৃষ্টি ও উন্মুক্ত এলাকা হিসেবে রাখেন। ৮২২ একর জমিতে ২০ লাখ গাছ লাগানো হয়েছে। ৪৭০ একর জমিতে ১৭টি জলাধার সৃষ্টি করা হয়েছে এবং উন্মুক্ত এলাকায় ঘাস লাগিয়ে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের বিনোদনের জন্য গলফ কোর্স তৈরি করা হয়েছে। বাকি থাকা ১ হাজার ২০০ একর জমিতে অবকাঠামো তৈরি করা হয়েছে। এ জমির ৩৩ শতাংশে রাস্তাঘাট নির্মাণ করেছে। ফলে কারখানা ও অন্যান্য অবকাঠামো নির্মাণের জন্য জমি বাকি থাকে ৮৫৮ একর। এর মধ্যে ৫১৬ একর জমির উন্নয়ন কাজ শেষ। বাকি ৩৪২ একর জমির উন্নয়নকাজ এগিয়ে চলছে। কেইপিজেডে এখন সকালে ঘুম ভাঙে পাখির কিচির মিচিরে। বিকেলেই শোনা যায় শেয়ালের ডাক। লেকগুলোয় অতিথি পাখিরা এসে ভরে গেছে।

গত বছরের ১৩ জুলাই আনোয়ারা উপজেলার বৈরাগ ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর এলাকায় বন্য হাতির আক্রমণে আবদুর রহমান (৭৫) নামে একজন নিহত হন।

coxbazar- মিয়ানমারে কারাভোগ করে দেশে ফিরলেন ২৪ বাংলাদেশি

⊡ মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ২৩, ২০২১