ফেসবুকে ৭ম শ্রেণির স্কুলছাত্রীর আপত্তিকর ছবি, ধর্ষণের হুমকি!

◷ ৯:৪৩ অপরাহ্ন ৷ মঙ্গলবার, জানুয়ারী ১৫, ২০১৯ রংপুর

দিনাজপুর প্রতিনিধি :: দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার আউলিয়াপুকুর ইউনিয়নের মর্ত্তমন্ডল গ্রামের স্কুল পড়ুয়া এক ছাত্রীর আপত্তিকর ছবি ফেসবুকে পোষ্ট করেছে একই গ্রামের কয়েকজন বখাটে যুবক।

৭ম শ্রেণিতে পড়ুয়া ঐ ছাত্রী সদ্য বিদায়ী বছরের ১৩ ডিসেম্বর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ গোলাম রব্বানীকে লিখিত অভিযোগ করেন ওই ছাত্রী। অভিযোগে উল্লেখ করেন, বখাটে মর্ত্তমন্ডল শাহাপাড়ার মোক্তার বাবুর ছেলে জসিমুদ্দিন লাজু (২৫) কয়সার আলীর ছেলে ফারুক (২৩) একই গ্রামের আনিছুর রহমান (ছোট) পুত্র আরমান হোসেনসহ অজ্ঞাত আরো দুই জন এ ঘটনার সথে জড়িত।

বিষয়টি প্রশাসনকে জানানোর একমাস অতিবাহিত হলেও প্রশাসনের ভ্রুক্ষেপ না থাকার ফলে অপরাধীদের বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত কোন আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় ওই ছাত্রীর অভিভাবক ও গ্রামবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করেছে।

তাদের অভিযোগ, বখাটেদের অত্যাচারে আশপাশের কয়েকটি গ্রামের মেয়েরা স্কুল ও কলেজে স্বাচ্ছ্যন্দে যেতে পারে না। স্কুল ও কলেজ যাওয়া ও আশার পথে কারেন্ট হাট বাজারের মোড়ে দাড়িয়ে মেয়েদের তির্যক কথাবার্তা, অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করে দীর্ঘদিন ধরে বিরক্ত করে আসছে।

ভূক্তভোগী ছাত্রী বলেন, প্রথমে তারা আমার কাছে ৫ হাজার টাকা চাঁদা দাবী করে, টাকা না দেয়ায় বখাটেরা আমার ছবি সংগ্রহ করে এডিটিং করে কুরুচিপূর্ণ অন্য মেয়ের ছবি সংযুক্ত করে সামাজিক ভাবে হেয় প্রতিপন্ন করেই ক্ষ্যান্ত হয়নি, তারা আমাকে অপহরন করে ধর্ষণ করাসহ প্রাণনাশের হুমকিও নানা ভাবে দিচ্ছে। আমি তাদের উপযুক্ত শাস্তি চাই।

ঘটনার বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ গোলাম রব্বানীর কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি চিরিরবন্দর এ্যাসিল্যান্ড মোঃ মেজবাউল করিমকে যথোপযুক্ত আইনি ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য ঐ ছাত্রীর লিখিত অভিযোগটি প্রেরণ করেন।

এ্যাসিল্যান্ড বখাটেদের বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা গ্রহন করলেন, জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য চিরিরবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে আমি নির্দেশ দিয়েছি।