ভয়ঙ্কর ঘটনার সাক্ষী গ্রামবাসী, ঘর থেকে ৩ বছরের শিশুকে টেনে নিয়ে গেল চিতাবাঘ!

১২:৩৫ অপরাহ্ন | বুধবার, জানুয়ারী ১৬, ২০১৯ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের আলিপুরদুয়ারের মাদারিহাটে ভয়ঙ্কর এক ঘটনা ঘটে গেল। জানা যায়, ৩ বছরের শিশুকন্যাকে ঘর থেকে টেনে নিয়ে যায় চিতাবাঘ। সারা রাত তল্লাশির পর বুধবার সকালে উদ্ধার হল শিশুটির খণ্ডবিখণ্ড দেহ। এই ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়েছে এলাকায়। রাগে ফুঁসছে স্থানীয়রা।

আলিপুরদুয়ারের মাদারিহাটে গ্যারগেন্ডা চা বাগানের ফ্যাক্টরি লাইনে থাকত ৩ বছরের ছোট্ট প্রমিতা ওঁরাও। মঙ্গলবার সন্ধ্যাতেও অন্যদিনের মতো ঘরে খেলছিল সে। এমনসময়ই অতর্কিতে চিতাবাঘের আক্রমণ। ঘর থেকে ছোট্ট প্রমিতাকে তুলে নিয়ে যায় চিতাবাঘ।

সঙ্গে সঙ্গেই গোটা এলাকায় খবর হয়ে যায়। হুলুস্থুল পড়ে যায় এলাকায়। শিশুটির খোঁজে শুরু হয় তল্লাশি। আতঙ্কে প্রমাদ গুনতে থাকেন স্থানীয়রা। কিন্তু বহু তল্লাশির পরেও সারা সন্ধ্যা, রাত নিখোঁজ শিশুকন্যার আর কোনও খোঁজ মেলেনি। এই ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। বনদফতরের গাড়ি ভাঙচুর চালায় উত্তেজিত জনতা। বনকর্মীদের ঘিরে বিক্ষোভ দেখায় এলাকাবাসী।

সারা রাত তল্লাশির পর এরপরই বুধবার সকালে নিখোঁজ শিশুকন্যার দেহ উদ্ধার হয়। গেরগেন্ডা চা বাগানেই উদ্ধার হয় শিশুটির খণ্ডবিখণ্ড দেহ।

দেখা যায়, চিতাবাঘটি শিশুটিকে খুবলে খুবলে খেয়েছে। আজ সকালে স্থানীয়রাই প্রথম গেরগেন্ডা চা বাগানে শিশুটির দেহাংশ পড়ে থাকতে দেখেন। খবর দেওয়া হয় বনদফতরে। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে পুলিশ ও বনদফতরের কর্মীরা।