বাশেঁর সাঁকোই ভরসা, প্রতিনিয়ত ঘটছে দূর্ঘাটনা!

⏱ | বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৫, ২০১৯ 📁 ঢাকা

এইচ এম মিলন, কালকিনি (মাদারীপুর) থেকে: মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার বালীগ্রাম এলাকার ঘুঙ্গাকুল গ্রামের মোল্লাবাড়ির সামনে খালে উপর একটি বাশেঁর সাঁকো পারাপারে সময় প্রতিনিয়ত ঘটছে দূর্ঘাটনা। এছাড়া দীর্ঘদিন ধরে একটি ব্রিজের অভাবে ওই এলাকাবাসীর চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

ওই খালের উপর ভাঙ্গা-চোরা একটি সাঁকো। তারপরও হাজার-হাজার মানুষ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পারাপার হচ্ছে বাইসাইকেল, ভ্যান ও মোটরসাইকেলসহ বিভিন্ন ভারি জিনিসপত্র নিয়ে। এলাকাবাসীর অভিযোগ, বালীগ্রাম ঘুঙ্গাকুল এ সড়কটি দিয়ে গোপালপুর, পাথুরিয়ারপাড় ও পশ্চিম বালীগ্রামের বেশিরভাগ মানুষ মাদারীপুর জেলা সদরে যাতায়াত করে। কিন্তু এখানে ব্রীজের অভাবে তাদেরকে অনেক কষ্ট স্বীকার করতে হচ্ছে। ওই এলাকাবাসী দীর্ঘদিন ধরে দাবী করে আসছে একটি ব্রীজের জন্য। কিন্তু তাতে কোন কাজ হচ্ছেনা।

ঘুঙ্গাকুল গ্রামের প্রায় ৫ হাজার মানুষ প্রতিদিন ওই সাঁকো দিয়ে পারাপার হয়। এবং ওখানে প্রতিবছর এলাকাবাসীর উদ্যোগেই স্বেচ্ছাশ্রমে পুরানো সাঁকোটি সংস্কার করা হয়ে থাকে। গোপালপুর এবং কালীগঞ্জ বাজারে দৈনন্দিক সব কাজ মেটান ওই গ্রামের মানুষগুলো। এবং কি সাঁকোর দুই প্রান্তের বাচ্চাদের পড়ালেখা করতে খালের উপরের ওই সাঁকো পারাপার হয়ে স্কুলে যেতে হয়। এতে করে অনেক সময় পা পিচলে সাঁকো থেকে পানিতে পরে যেতে হয়। কিন্তু এ খালের উপর দিয়ে একটি ব্রীজ করার জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সরকারের লোকজনের ধরনা দিয়ে যাচ্ছে ঘঙ্গাকুলবাসী। কিন্তু কোন ফল হচ্ছেনা।

এলাকাবাসী ইরান ও পিপাসা খানম বলেন, আমাদের গ্রামের খালের উপর একটি ব্রিজ না হওয়ার কারনে আমরা পুরো গ্রামের মানুষ দুর্ভোগের স্বীকার হচ্ছি। আমরা গ্রামবাসী অনেক চেষ্টা করেছি। কিন্তু এখানে একটি ব্রিজ হচ্ছেনা। সাঁকো সাঁকই রয়ে গেলে। কিন্তু আমাদের দাবি আর পুরন হয়নি।।

এ ব্যাপারে কালকিনি উপজেলা প্রকৌশলী ইয়াফি হোসেন বলেন, এখন পর্যন্ত ওই স্থানে সেতু নির্মানের কোন প্রকল্প হাতে নেয়া হয়নি। তবে স্থানীয় জনসাধারনের প্রয়োজনের কথা চিন্তা করে সেতুর বিষয় ব্যবস্থা নেয়া যেতে পারে।