নববধূকে দেখতে এসে স্বামীকে আটকে রাখল তিন বন্ধু, একজন করল ধর্ষণ!


❏ শুক্রবার, এপ্রিল ২৬, ২০১৯ অপরাধ

পটুয়াখালী প্রতিনিধি :: পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলায় নববধূকে দেখতে এসে তিন বন্ধুর সহযোগিতায় ধর্ষণ করেছে এক যুবক। এ ঘটনায় চারজনকে আসামি করে থানায় মামলা করা হয়েছে। বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার বেতমোড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার বরগুনার আমতলী উপজেলা থেকে কলাপাড়ার চাকামাইয়া ইউনিয়নের বেতমোড়া গ্রামে খালু শ্বশুরের বাড়ি নববধূকে নিয়ে বেড়াতে আসেন তার স্বামী।

সন্ধ্যায় স্থানীয় বখাটে রফিকের নেতৃত্বে রাসেল, খালেক ও জাফর নববধূকে দেখতে খালু শ্বশুরের বাড়িতে যায়। নববধূকে দেখে তার সঙ্গে কথা বলতে চায় চার বন্ধু। কথা বলার অজুহাতে তাকে তুলে ঘরের পাশের মাঠে নিয়ে যায় তারা। সেখানে তিন বন্ধুর সহযোগিতায় নববধূকে উপর্যুপুরি ধর্ষণ করে রফিক।

পরে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় নববধূকে উদ্ধার করে রাত সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। ওইদিন রাতেই নববধূর স্বামী বাদী হয়ে চারজনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন।

মামলার বাদী গৃহবধূর স্বামী বলেন, খালু শ্বশুরের বাড়িতে বেড়াতে এলে বখাটে রফিকের নেতৃত্বে রাসেল, খালেক ও জাফর জোর করে আমাদের ঘরে প্রবেশ করে। পরে আমাদের বিয়ে হয়নি অভিযোগ তুলে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে তারা। এ সময় তারা আমাকে মারধর করে নববধূকে তুলে নিয়ে যায়। পরে বাড়ির পাশে মাঠের মধ্যে নিয়ে আমার স্ত্রীকে ধর্ষণ করে রফিক। ওই সময় নববধূ ও আমাদের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসে। পরে ধর্ষকসহ বখাটেরা পালিয়ে যায়। রাতে বখাটে রফিকসহ চারজনকে আসামি করে থানায় মামলা করেছি আমি।

কলাপাড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, নববধূকে ধর্ষণের ঘটনায় চারজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ভিকটিমকে উদ্ধার করে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পটুয়াখালী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।