🕓 সংবাদ শিরোনাম

কারাগারে বাড়তি নিরাপত্তায় বাবুল আক্তারসাংবাদিক রোজিনাকে হয়রানি ও হেনস্থার প্রতিবাদে রাঙামাটি প্রেসক্লাবের মানববন্ধনসাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে নির্যাতনের প্রতিবাদে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের মানববন্ধনঝালকাঠিতে জমি নিয়ে বিরোধে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা,আটক-২মাত্র ২০ ঘন্টায় ১০ লক্ষ দর্শক পেল“ তাকে ভালোবাসা বলে” নাটকটিবিয়ের কথা বলে প্রেমিকাকে তুলে নিয়ে রাতভর ধর্ষণভারতে করোনায় একদিনে মারা গেলেন ৫০ চিকিৎসকদেশে বিশেষ অভিযান চালাবে ইন্টারপোলসাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে নেওয়া হলো আদালতেতুমুল সমালোচনার মুখে ‘জেরুজালেম প্রেয়ার টিম’পেজ সরিয়ে নিল ফেসবুক কর্তৃপক্ষ

  • আজ মঙ্গলবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৮ মে, ২০২১ ৷

বিভিন্ন সমস্যায় জর্জরিত বেলকুচি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স!


❏ শুক্রবার, এপ্রিল ২৬, ২০১৯ রাজশাহী

বেলকুচি (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি: প্রায় ৪ লক্ষাধিক মানুষের বসবাস থাকলেও সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে নেই কোন উন্নত মানের চিকিৎসার জন্য আধুনিক হসপিটাল। তাই মানুষ বাধ্য হয়ে চিকিৎসা সেবার জন্য ঝুকে পড়ছে বেলকুচি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দিকেই।

বেলকুচি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রতিদিন গড়ে ৪' শত জন রোগী চিকিৎসা সেবার জন্য ছুটে আসে। সেবার শেষ আশ্রয়স্থল এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি। কিন্তু নানা সমস্যায় জরাজীর্ণ হয়ে আছে হসপিটালটি। নেই পর্যপ্ত পরিমাণ ডাক্তার, নার্স, পানি সরবরাহের ব্যবস্থা, রোগীদের বেড, এক্সরে মেশিন সহ আধুনিক চিকিৎসা দেবার জন্য পর্যাপ্ত সরঞ্জাম ।

এখানে চিকিৎসা নিতে আশা বহিরাগত রোগীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, ডাক্তার সংকটের কারণে তারা সময় মত সঠিক চিকিৎসা পাচ্ছেনা। তাছাড়াও রোগ নির্নয়ের জন্য প্রয়োজনীয় পরীক্ষা দিলে যেতে হয় প্রাইভেট ক্লিনিকের দিকে। তারা আরও বলেন, আমরা যখন পরীক্ষা করার জন্য বাহিরে যাই তখন যে বিল আসে তা আমাদের জন্য কষ্টসাধ্য। যে সেবা দেওয়ার কথা ছিল বিনামূল্যে তা আমাদের টাকা খরচ করে করতে হয়।

আন্তঃ বিভাগের রোগীদের সাথে কথা বললে তারা বলেন, আমরা ভর্তি হওয়ার পরে প্রয়োজনের তুলনায় আশানুরূপ চিকিৎসা সেবা পাইনা। এ ছাড়া ৩১ শয্যা থেকে ৫০ শয্যা উন্নীত হয়েছে নাম মাত্র। বেড আছে আগের সেই ৩১ টি। থাকার জায়গাগুলো অপরিষ্কার। বাথ রুম দিয়ে দূর্গন্ধ, ঠিক মত থাকেনা পানি সরবরাহ। আমরা এই দূর্ভোগ নিরসনের জন্য উর্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এদিকে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মাহবুব হোসেন জানান, প্রায় ৩ বছর পূর্বে আমাদের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি ৩১ শয্যা থেকে ৫০ শয্যায় উন্নীত করা হলেও প্রয়োজনীয় জনবল ও আধুনিক মানের চিকিৎসা সরঞ্জাম না থাকায় আমরা সঠিক ভাবে চিকিৎসা দিতে পারছিনা রোগীদের। তবে এসব বিষয়ে স্থানীয় এমপি মহোদয় ও উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।