• আজ ২৫শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

৩য় শ্রেণীর স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের রোমহর্ষক বর্ণনা দিল সত্তরোর্ধ বৃদ্ধ!

❏ শনিবার, এপ্রিল ২৭, ২০১৯ আলোচিত

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি :: হবিগঞ্জের লাখাই উপজেলায় তৃতীয় শ্রেণি পড়ুয়া স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন বৃদ্ধ জুরা মিয়া (৭০)। ধর্ষণের শিকার শিশুটি উপজেলার একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী।

ধর্ষক জুরা মিয়া উপজেলার ভাদিকারা গ্রামের বাসিন্দা। শুক্রবার বিকেল ৫টার পর হবিগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তাহমিনা আক্তারের আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে জহুর আলী। যা অত্যন্ত হৃদয়বিদারক ও রোমহর্ষক বলে আদালত সূত্রে জানা গেছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা লাখাই থানার উপ পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) আমিনুল ইসলাম বলেন, বৃহস্পতিবার বিকেলে বাড়ির পাশর্বর্তী স্থানে ধান তুলতে যায় ৯ বছর বয়সি ওই শিশুটি। ওই সময় জুরা মিয়া একটি ছোট ঘরে নিয়ে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। মেয়েটির চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করেন।

ওই সময় জুরা মিয়াকে গণধোলাই দেয়া হয়। ঘটনার পর আত্মগোপন করে ধর্ষক। পরে বৃহস্পতিবার ভোররাতে হবিগঞ্জ সদর উপজেলার রিচি গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

শুক্রবার দুপুরে মেয়েটির পিতা বাদী হয়ে লাখাই থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মেয়েটি হবিগঞ্জ আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শিশুটির মা জানান, বৃহস্পতিবার মাগরিবের আজানের পর বাড়ির পাশের ধানের খলায় বাবাকে ভাত দিতে গিয়েছিল শিশুটি। পরে ফেরার পথে বৃদ্ধ জুরা মিয়া শিশুটিকে ডেকে অন্য একটি ধানের খলায় নিয়ে যায়। সেখানে তাকে ধর্ষণ করে লম্পট বৃদ্ধ।