দল বহিষ্কার করলে জাহিদের এমপি পদ কী থাকবে


❏ শনিবার, এপ্রিল ২৭, ২০১৯ জাতীয়

সময়ের কন্ঠস্বর ডেস্ক-  দলীয় সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে ঠাকুরগাঁও-৩ আসন থেকে নির্বাচিত মো. জাহিদুর রহমান জাহিদ শপথ গ্রহণ করায় নড়েচড়ে বসছে বিএনপি। জাহিদের পথে দলের আরও অন্তত চারজন রয়েছে বলেও গুঞ্জন রয়েছে। সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে দলটির সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির জরুরি বৈঠক আহ্বান করা হয়েছে।

আজ শনিবার সন্ধ্যায় গুলশানে চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

সূত্র জানায়, দলীয় সিদ্ধান্ত ভঙ্গ করে জাহিদুর রহমান জাহিদ সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ গ্রহণ করায় তার বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা গ্রহণ করা যায়-সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতেই মূলত এ বৈঠক আহ্বান করা হয়েছে। পাশাপাশি দলীয় সিদ্ধান্ত ভঙ্গ করে করে গণফোরাম নেতা মোকাব্বির খান শপথ নেয়ার পর দলীয় কাউন্সিলে তাকে রাখার বিষয়টিও ভাবাচ্ছে বিএনপিকে।

এদিকে বিভিন্ন সূত্রে বলা হচ্ছে দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে শপথ নেওয়ায় ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচিত জাহিদুর রহমানকে দল থেকে বহিষ্কার করা হতে পারে। তবে বিএনপির মহাসচিব বিষয়টি নিয়ে আলোচনা সাপেক্ষে দলীয় ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও জানান।

শুক্রবার রাজধানীর চন্দ্রিমা উদ্যানে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের মাজারে শ্রদ্ধা জানানো শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে এনিয়ে কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, জাহিদুর রহমান শপথ নিয়েছেন দলের সিদ্ধান্ত ভঙ্গ করে। এটা তিনি অত্যন্ত গর্হিত কাজ করেছেন, অন্যায়, অপরাধ করেছেন। এ জন্য তার বিরুদ্ধে সংগঠন ব্যবস্থা নেবে। যেটাকে আমরা বলি সাংগঠনিক ব্যবস্থা, সেটা অবশ্যই নেয়া হবে।

তিনি বলেন, আমরা মনে করি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল জনগণের দল। একজন ব্যক্তি বা একটা গোষ্ঠীর যদি কেউ কোনো সিদ্ধান্ত নেয় তাতে দলের বড় কোনো ক্ষতি হয় না। এ ধরনের ঘটনায় দলে কোনো বিশৃঙ্খলা নেই। এ ধরনের ঘটনা অতীতেও ঘটেছে এবং এতে আমরা খুব বেশি উদ্বিগ্ন নই।

দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে একজন সদস্য শপথ গ্রহণ করলে তার সংসদ সদস্যপদের বৈধতা নিয়ে বিএনপি স্পিকার অথবা নির্বাচন কমিশনের কাছে চিঠি দেবে কি না- প্রশ্ন করা হলে বিএনপির মহাসচিব বলেন, এটা সম্পূর্ণ নির্ভর করবে আমাদের আগামীকালের স্থায়ী কমিটির সভার ওপর। সেই সভায় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জাহিদের বিরুদ্ধে কী ধরনের সিদ্ধান্ত হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সেটা স্থায়ী কমিটির বৈঠকে সিদ্ধান্ত হবে। আমি তো একা সিদ্ধান্ত নেয়ার মালিক নই। যখন সিদ্ধান্ত হবে আপনারা তা জানতে পারবেন।

এদিকে বিএনপির নির্বাচিত প্রতিনিধিদের মধ্যে যারা সংসদে শপথ নেবেন দল বহিষ্কার করলেও তাদের সংসদ সদস্য পদ যাবে না বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

আইনমন্ত্রী বলেন, বিএনপি থেকে যারা সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিচ্ছেন তাদের দল থেকে বহিষ্কার করা হলেও কোনো প্রভাব পড়বে না। তাদের এমপি পদ টিকে যাবে।

সংবিধানের ব্যাখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, ‘সংবিধানে বলা আছে- কেউ যদি দলের বিপক্ষে জাতীয় সংসদে ভোট দেন বা দল থেকে যদি তারা পদত্যাগ করেন, তা হলে তাদের সংসদ সদস্যপদ বাতিল হবে। দল বহিষ্কার করলে তাদের সদস্যপদ বাতিল হবে না।’