🕓 সংবাদ শিরোনাম

টাঙ্গাইলে সড়ক দূর্ঘটনায় ছাত্রীসহ নিহত-২আমিরাতের সর্বোচ্চ পর্বত জেবেল জাইসহিলি ইমিগ্রেশন দিয়ে ফিরতে পারবেন ভারতে আটকেপড়া বাংলাদেশিরানাম্বার ব্লাকলিষ্টে দেওয়ায় যুবকের বাড়িতে কলেজছাত্রীর অবস্থান!সৌদিআরবকে ‘বিশ্বের সবচেয়ে আশাবাদী’দেশ হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছেএকটা কার্ড করে দেনা বাজান, খেয়ে বাঁচি ! ফুলবাডীতে সামদ্রিক শৈবাল চাষের প্রোজেক্ট পরিদর্শন করলেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনারপটুয়াখালীতে চাল আত্মসাতের মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেপ্তারসরকার আইন-আদালতকে নিজের সুবিধায় ইচ্ছেমত ব্যবহার করছে -মির্জা ফখরুলআগুন নিয়ে খেলবেন না: নেতানিয়াহুকে হামাসপ্রধান

  • আজ রবিবার, ২ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৬ মে, ২০২১ ৷

ডিভোর্সী নারীর সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে গণধোলাইয়ের শিকার ইউপি চেয়ারম্যান!


❏ শনিবার, এপ্রিল ২৭, ২০১৯ ঢাকা

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি :: টাঙ্গাইলের সখীপুরে রাতের আধারে নারীর সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে জনতার গণধোলাইয়ের শিকার হয়েছেন এক ইউপি চেয়ারম্যান। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার দাড়িয়াপুর ইউনিয়নের দাড়িয়াপুর মাজারপাড় এলাকায় ঘটনাটি ঘটে।

গণধোলাইয়ের শিকার হওয়া মো. হাবিবুর রহমান হবি তালুকদার বাসাইল উপজেলার কাউলজানী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সভাপতি। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় রাতেই ওই ইউপি চেয়ারম্যানকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয় ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, বেশ কিছুদিন আগে বাসাইল উপজেলার কাউলজানী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. হাবিবুর রহমান হবি তালুকদার সখীপুর উপজেলার দাড়িয়াপুর মাজারপাড় এলাকার আজাহার উদ্দিনের মেয়ে শারমিন আক্তার (২২) এর বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটাতে সহযোগীতা করেন। এ বিষয়ে বেশ কয়েক দফা সালিশী বৈঠক করার মাধ্যমে তার বিবাহ বিচ্ছেদ সম্পন্ন করতে সহায়ক ভূমিকা পালন করেন। যার সুবাদে ওই চেয়ারম্যান ও মেয়েটির মধ্যে মুঠোফোনে কথপোকথনের মাধ্যমে সখ্যতা গড়ে ওঠে। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে মোটরসাইকেল যোগে ওই ইউপি চেয়ারম্যান গোপনে মেয়েটির সঙ্গে দেখা করতে এলে স্থানীয়রা কৌশলে গরুচোর দাবি করে চেয়ারম্যানকে গণধোলাই দিয়ে আটকে রাখেন। পরে রাতেই স্থানীয় ও বাসাইলের মাতাব্বরগণ ঘটনাস্থল এসে ওই চেয়ারম্যানকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন।

উপজেলার ৭নং দাড়িয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনছার আলী আসিফ ও স্থানীয় ইউপি সদস্য ওয়াহাব আলী এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

দাড়িয়াপুর ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান এসএম শাইফুল ইসলাম শামীম বলেন, রাতেই খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে হবি চেয়ারম্যানকে উদ্ধার করি। তবে বিষয়টি নিতান্তই ভুল বুঝাবুঝি বলে দাবি করেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে গণধোলাইয়ের শিকার কাউলজানী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. হাবিবুর রহমান হবি তালুকদার বলেন, ওই মেয়েটির বাড়ির পাশ দিয়ে আমি সখীপুর থেকে বাড়ি ফিরছিলাম। তবে স্থানীয়রা আমাকে গরুচোর ভেবে আমার উপর হামলা চালায়। পরে আমার পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পর তারা আমাকে ছেড়ে দেয়।