🕓 সংবাদ শিরোনাম

শেরপুরে পৃথক ঘটনায় একই দিনে ৭ জনের অস্বাভাবিক মৃত্যু!শেরপুরে পৃথক ঘটনায় একদিনে ৭ জনের মৃত্যুএক বিয়ে করে দ্বিতীয় বিয়ের জন্যে বড়যাত্রীসহ খুলনা গেল যুবক!আমার মৃত্যুর জন্য রনি দায়ী! চিরকুট লিখে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যাইসরাইলীয় আগ্রাসনের  বিরুদ্ধে ইসলামী বিশ্বের নিন্দার নেতৃত্বে সৌদি আরবত্রিশালে সড়ক দূর্ঘটনায় ৩ জনের মৃত্যুতে নিহতের বাড়ীতে চলছে শোকের মাতমকলাপাড়ায় এক সন্তানের জননীর মরদেহ উদ্ধারটাঙ্গাইলে কৃষক শুকুর মাহমুদ হত্যা মামলায় গ্রেফতার-১ফরিদপুরে নানা আয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালিতজামালপুরে ঘর মেরামতের সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে তিন জনের মৃত্যু

  • আজ সোমবার, ৩ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৭ মে, ২০২১ ৷

টাঙ্গাইলে এস আইয়ের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজীর অভিযোগে থানা ঘেরাও

Tangail
❏ রবিবার, এপ্রিল ২৮, ২০১৯ ঢাকা

অন্তু দাস হৃদয়, স্টাফ রিপোটার : টাঙ্গাইল মডেল থানার এক এস.আইয়ের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও হয়রানির অভিযোগে শনিবার রাতে থানা ঘেরাও করে প্রতিবাদ ও বিচার দাবি করেছে টাঙ্গাইল সদর উপজেলার বেলতা গ্রামের মানুষ।

এ সময় তারা ওই এস আইয়ের প্রত্যাহার চেয়ে বিভিন্ন শ্লোগান দিতে থাকেন। পরে পুলিশ ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিলে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী নয় টার দিকে থানা চত্তর ত্যাগ করেন।

এলাকাবাসী অভিযোগ, কিছু দিন আগে বেলতা গ্রামে একটি হত্যাকান্ড ঘটে। সেই হত্যাকান্ডের তদন্তের নামে টাঙ্গাইল মডেল থানার (এস.আই) জেসমিনের সোর্স পরিচয়ে এক ব্যক্তি তার (জেসমিন) নাম ধরে স্থানীয়দের কারো কারো কাছ থেকে চাঁদা আদায় করে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে তাকে ওই হত্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেয়া হবে বলে শাসানো হয়।

এ ছাড়া গ্রামের মানুষদের বিভিন্নভাবে হয়রানিও করা হয়। এরই সূত্র ধরে শনিবার বিকেলের দিকে ওই সোর্স বেলতা গ্রামে গিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা দাবি করলে গ্রামবাসী তাকে আটক করে।

পরে, এস.আই জেসমিন তাকে উদ্ধার করতে গেলে গ্রামবাসী তাকেও ঘিরে ধরে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ সদস্য ঘটনাস্থলে পৌছে তাদের উদ্ধার করে। সন্ধ্যার পর গ্রামবাসী একত্র হয়ে জেসমিনের প্রত্যাহার দাবিতে থানা ঘেরাও করে।

এ ব্যাপারে টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) রেজাউর রহমান সময়ের কন্ঠস্বর’কে জানান, থানা ঘেরাও না গ্রামবাসী অভিযোগ দিতে এসেছিল। তাদের সঙ্গে কথা হয়েছে। তারা লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। এর প্রেক্ষিতে পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেয়া হবে। কারো কাছ থেকে টাকা নেয়া কোন ভাবে বিধিসম্মত নয়। এ ধরণের কোন ঘটনা ঘটে থাকলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, ইতিপূর্বে এস.আই জেসমিন আক্তারের বিরুদ্ধে সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন বাসীর একাধিক অভিযোগ রয়েছে। কিন্তু ভয়ে ভুক্তভোগীরা প্রকাশ করতে সাহস পাচ্ছে না। ক্রমশ টাঙ্গাইল বাসী ফুসে উঠেছে। এস আই জেসমিনের অপসারন সহ শাস্তির দাবী জানিয়েছেন টাঙ্গাইলবাসী।