মুহুর্তেই টিকিট পেতে চালু হলো ‘রেলসেবা’ মোবাইল অ্যাপ


❏ রবিবার, এপ্রিল ২৮, ২০১৯ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- রেলওয়ের টিকিট ক্রয় সহজীকরণসহ যাত্রীসেবা নিশ্চিতের লক্ষ্যে রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে ওয়ান স্টপ মোবাইল অ্যাপ ‘রেলসেবা’র উদ্বোধন করা হয়েছে।

রোববার (২৮ এপ্রিল) বিকেল সাড়ে ৫টায় কমলাপুর রেলস্টেশনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে রেলমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন নিজে এই অ্যাপ থেকে টিকিট কেটে সেবাটির উদ্বোধন করলেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বর্তমানে পাঁচশ ব্যক্তি একই সময়ে এই অ্যাপ থেকে টিকিট কাটতে পারবেন। ঘণ্টায় ১৫ হাজার টিকিট বিক্রি করার সক্ষমতা রয়েছে এই অ্যাপের। ভবিষ্যতে অ্যাপ থেকে টিকিট বিক্রির সক্ষমতা আরও বাড়ানো হবে।

অ্যাপটিতে সব আন্তঃনগর ট্রেনের টিকিট ক্রয় করা যাবে, নির্দিষ্ট গন্তব্যের ভাড়া জানা যাবে, টিকিট প্রাপ্যতা সম্পর্কে জানা যাবে, ট্রেন রুট, সময়সূচি, ট্রেনভিত্তিক বিরতি স্টেশনসমূহের নাম ও সময়সূচি, জার্নি হিস্ট্রি, কোচ ভিউ, সিট চয়েজ করা যাবে।

এ ছাড়াও গুরুত্বপূর্ণ স্টেশনের নম্বর, খাবারের মেন্যু ও মূল্য তালিকাও জানা যাবে। পরবর্তীতে এ অ্যাপটি থেকে যেকোনো যাত্রী সহজেই তার নিজের অথবা পরিবারের জন্য খাবার কিনতে পারবেন।

জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করে ‘রেলসেবা’ অ্যাপে নিবন্ধন করা যাবে। একই আইডি থেকে একবারে চারটি আসনের জন্য টিকিট সংগ্রহ করা যাবে। আর দিনে দুই বার চারটি করে আটটি পর্যন্ত আসনের টিকিট কাটতে পারবেন যে কেউ।

রেলসেবা অ্যাপটি বর্তমানে সব ধরনের অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলের মাধ্যমে ব্যবহার করা যাবে। অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোনভিত্তিক অ্যাপটি উদ্বোধনের পর থেকেই ব্যবহার করা যাবে। তবে আইওএসভিত্তিক মোবাইল ফোনে অ্যাপটি উদ্বোধনের ৭২ ঘণ্টা পর ব্যবহার করা যাবে।

ইতোমধ্যে জাতীয় কল সেন্টারের (৩৩৩) সঙ্গে বাংলাদেশ রেলওয়ের তথ্যসমূহ ইন্টিগ্রেইড করা হয়েছে। ফলে জাতীয় কল সেন্টার ৩৩৩ থেকে বাংলাদেশ রেলওয়ে সম্পর্কিত যেকোনো তথ্য পাওয়া যাবে।ভ্রমণকালীন সব রকম যাত্রীসেবা এক অ্যাপেই পাওয়া যাবে এবং যাত্রীরা সুযোগ গ্রহণ করতে পারবেন। ভ্রমণ শেষে ভ্রমণের অভিজ্ঞতার ওপর যাত্রী সাধারণ তাদের মতামত অ্যাপের মাধ্যমে প্রদান করতে পারবেন।