বিএনপিই জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়েছে: হিরো আলম

১১:৫৬ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, এপ্রিল ৩০, ২০১৯ বিনোদন

নিজস্ব প্রতিবেদক, সময়ের কণ্ঠস্বর- এবার বিএনপি নেতাদের ওপর চটেছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বহুল আলোচিত আশরাফুল হোসেন হিরো আলম। বিনোদন এরশাদ নয়, বিএনপিকেই বিনোদন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

সোমবার (২৯ এপ্রিল) সময় সীমার শেষ দিনে এসে সংসদ সদস্য হিসাবে শপথ নিয়েছেন একাদশ সংসদ নির্বাচনে বিএনপির নির্বাচিত আরও চারজন সংসদ সদস্য।

আন্দোলনের অংশ হিসেবে দলীয় সিদ্ধান্তে বিএনপির নির্বাচিতরা শপথ নিয়েছেন বলে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করেন ডিশ ব্যবসায়ী থেকে তারকা বনে যাওয়া অভিনেতা হিরো আলম।

বিএনপির সমালোচনা করে সোমবার রাতে তিনি ব্যক্তিগত ফেসবুকে লিখেছেন, বিএনপি সকালে যে কথা বলে, বিকেলে সে কথা ভুলে যায়। বিনোদন এরশাদ নয়, বিনোদন হলো বিএনপি। ‘প্রমাণ হলো, বিএনপি জনগনের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়েছে। নির্বাচন বর্জন, সংসদে শপথ নেবে না বলে নাটক। উপজেলা নির্বাচনেও নাটক করেছে।’

ফেসবুকে স্ট্যাটাসের পর সোমবার রাতে গনমাধ্যমকে হিরো আলম বলেন, সংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়ে বিএনপি ভোট বর্জন করেছিল কেন? প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচন বলা হয়েছিল কেন? জনগনের পক্ষে আমি সেই প্রশ্নের উত্তর চাই। ভোটের মাঠে থাকলে পাঁচটা ভোট হলেও তো উনারা (বিএনপি) পেতেন। ভোট সুষ্ঠু হয়নি দাবি করে প্রার্থীদের নির্বাচন থেকে বঞ্চিত করেছে। উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থী দেয়নি, অংশ নেয়নি। কি অপরাধ ছিল উপজেলার সম্ভাব্য প্রার্থীদের? তবে কি বিএনপি জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে? প্রশ্নের উত্তর দেয়ার মুখ নেই বিএনপি মহাসচিবের!

হিরো আলম বলেন, বিএনপি বারবার একটাই কথা বলে ‘জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়েছে নাকি আওয়ামী লীগ’। আমি বলবো, জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়েছে বিএনপি। জনপ্রিয় দল এখন আওয়ামী লীগ আর জাতীয় পার্টি।

বিএনপিকে স্বৈরাচার দল মন্তব্য করে তিনি বলেন, বিএনপির নাটকে অনেক মানুষ আগুনে পুড়েছে। নিজেদের দলের নেতাকর্মীকেও ঠকিয়েছে। বিএনপির নেতারা মাঝেমধ্যেই মন্তব্য করে ‘এরশাদ নাকি স্বৈরাচার’। আমি বলবো ‘বিএনপিই স্বৈরাচার দল’।

সূত্রমতে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বগুড়া-৪ আসনে অংশ নিয়ে ব্যাপক আলোচনায় আসেন এমপি প্রার্থী হিরো আলম। নির্বাচনের মাঠে হিরোগিরি দেখিয়ে হামলার শিকারও হয়েছেন। সর্বশেষ স্ত্রী নির্যাতনের মামলায় গ্রেফতার হয়েছিলেন আলোচিত এই মডেল অভিনেতা।