🕓 সংবাদ শিরোনাম

কর্মস্থলে ফিরতে গাদাগাদি করে রাজধানীমুখী লাখো মানুষশেরপুরে পৃথক ঘটনায় একদিনে ৭ জনের মৃত্যুএক বিয়ে করে দ্বিতীয় বিয়ের জন্যে বড়যাত্রীসহ খুলনা গেল যুবক!আমার মৃত্যুর জন্য রনি দায়ী! চিরকুট লিখে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যাইসরাইলীয় আগ্রাসনের  বিরুদ্ধে ইসলামী বিশ্বের নিন্দার নেতৃত্বে সৌদি আরবত্রিশালে সড়ক দূর্ঘটনায় ৩ জনের মৃত্যুতে নিহতের বাড়ীতে চলছে শোকের মাতমকলাপাড়ায় এক সন্তানের জননীর মরদেহ উদ্ধারটাঙ্গাইলে কৃষক শুকুর মাহমুদ হত্যা মামলায় গ্রেফতার-১ফরিদপুরে নানা আয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালিতজামালপুরে ঘর মেরামতের সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে তিন জনের মৃত্যু

  • আজ সোমবার, ৩ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৭ মে, ২০২১ ৷

চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা অন্তত ৩২ করার অনুরোধ করলেন রওশন এরশাদ

rowsan
❏ মঙ্গলবার, এপ্রিল ৩০, ২০১৯ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ সংসদের চলতি অধিবেশনের সমাপনী বক্তৃতায় জাতীয় সংসদের বিরোধীদলের উপনেতা রওশন এরশাদ বলেছেন, বিশ্বব্যাংকের জরিপ অনুযায়ী দেশে কর্মক্ষম ব্যক্তির সংখ্যা সাড়ে ১০ কোটি। এর মধ্যে মাত্র ৫ কোটি মানুষ কাজ করছেন। বাকি সাড়ে ৫ কোটিই বেকার। এই বেকারত্ব কমাতে উদ্যোগ নেয়া দরকার। আর চাকরিতে প্রবেশের সময়সীমা বাড়ানোর জন্য আন্দোলন চলছে। এক্ষেত্রে ৩৫ বছর না করলেও অন্তত ৩২ বছর করুন।

প্রধানমন্ত্রীর প্রতি উদ্দেশ্য করে রওশন বলেন, চাকরিতে বয়সসীমা ৩৫ না করে যদি ৩২ করা হয় তাহলে ভালো হয়। তাহলে তাই করেন। প্রধানমন্ত্রী, আপনি তো একজন মা। আপনি চিন্তা-ভাবনা করে তাদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন বলেই আশা করি।

সংসদে আবারও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকের ক্ষতিকর দিক তুলে ধরে তিনি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের একটা খারাপ দিক- রাত জেগে ফেসবুক চালানো। এতে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনায় বিরূপ প্রভাব পড়ছে। এক্ষেত্রে অন্তত রাত ১২টা থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত ফেসবুক বন্ধ রাখা যায় কিনা একটু ভেবে দেখবেন।

‘রাতের ওই সময়টায় ফেসবুক বন্ধ করে দেয়া হলে অনেক সংসারও বেঁচে যাবে। পাশাপাশি অনেক ছেলে-মেয়ের জীবন বাঁচবে। কারণ তারা সারারাত জেগে থাকে। ঘুমায় না। এতে পড়াশোনারও অনেক ক্ষতি হয়।’

সংসদ সদস্য (এমপি) হিসেবে শপথ নিয়ে সংসদ অধিবেশনে যোগ দেয়ায় তিনি বলেন, সংসদে যোগ দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়ায় তাদের স্বাগত জানাচ্ছি।
রমজানে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি নিয়ে বিরোধী দলীয় উপনেতা বলেন, সামনে রমজান মাস। এ সময় কিছু অসাধু ব্যবসায়ী নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম বাড়িয়ে দেয়। অন্য দেশে রমজান মাসে দ্রব্যমূল্যের দাম কমিয়ে দেয় আর আমাদের দেশে হয় উল্টোটা। প্রতিবছরই এটা হয়ে থাকে।

তিনি বলেন, রমজান মাসে প্রতিটি জায়গায় ছোট ছোট আকারে ইফতারি বিক্রি করে। অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে তা বিক্রি করা হয়। এসব খাবার পরীক্ষা করা হয় না। এভাবে ইফতারি বিক্রি নিষিদ্ধ করতে হবে। যেনো মানুষ অখাদ্য না খেতে পারে।

ওয়াসার পানি নিয়ে রওশন এরশাদ বলেন, ঢাকায় আমরা যে পানি পান করছি তা ময়লাযুক্ত ও দুর্গন্ধময়। সুপেয় পানি পাওয়া অনেক দুরূহ ও কঠিন ব্যাপার।

প্রধানমন্ত্রীর প্রতি অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, সবাই যেনো সুপেয় পানি পায় সে বিষয়ে আপনি পদক্ষেপ নেবেন।

জঙ্গিবাদ প্রসঙ্গে রওশন বলেন, জঙ্গিবাদ এখন সারাবিশ্বে একটি বড় সমস্যা। এ নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। আমার মনে হয় আমাদের দেশে সন্ত্রাসী হামলা হয়েছিলো ১৯৭৫ সালে। তখন জাতির পিতাকে হত্যা করা হয়। তখন থেকে আমরা জঙ্গি হামলার সম্মুখীন হচ্ছি।