আনুষ্ঠানিক ভাবে প্রথম “জনতার মুখোমুখি” গাসিক মেয়র

১১:৫০ অপরাহ্ন | মঙ্গলবার, এপ্রিল ৩০, ২০১৯ ঢাকা
Gazipur City

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সময়ের কণ্ঠস্বর: নির্বাচিত হওয়ার পর প্রথম আনুষ্ঠানিকভাবে জনতার মুখোমুখি হলেন গাজীপুর সিটি মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলম । অবকাঠামো উন্নয়ন ও রক্ষণাবেক্ষনে জনগনের ভুমিকা শীর্ষক সভা “জনতার মুখোমুখি” অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তিনি জনতার প্রশ্নের জবাব এবং তার কর্ম পরিকল্পনার বিষয়ে আলোচনা করেন।

মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) বিকেলে নগরীর ধীরাশ্রম এলাকায় জি কে আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে প্রথম এ ধরণের ব্যতিক্রমী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কেএম রাহাতুল ইসলামের সভাপতিত্বে বিকাল ৪টা ৩০মিনিট থেকে ৬টা পর্যন্ত চলা অনুষ্ঠানে ছাত্র, শিক্ষক, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার ২৭জন মেয়রকে বিভিন্ন বিষয়ে প্রশ্ন করেন। মেয়র প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন এবং গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নিয়ে তার কর্মপরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন।

মেয়রের কাছে প্রশ্নকারী নাগরিকরা জানতে চেয়েছিলেন রাস্তাঘাট, ড্রেনেজ ব্যবস্থা, যানজট, যোগাযোগ ব্যবস্থা, কর্মসংস্থানসহ নাগরিক সুবিধার জন্য কি কি কর্মপরিকল্পনা তিনি ইতোমধ্যে গ্রহন করেছেন? এবং তা কত দিনে বাস্তবায়ন করা হবে।

মেয়র জাহাঙ্গীর জনতার মুখোমুখি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে জানান, জাপান গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের সার্বিক উন্নয়নে কমসুদে অর্থনৈতিক সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। তাছার একনেকে পাসের অপেক্ষায় আছে বড় একটি বরাদ্দ। মেয়র বলেন,১২শ কোটি টাকা ব্যয়ে বর্জ্য ব্যস্থাপনার কার্যক্রম খুব দ্রুত শুরু হবে। সরকারের কাছে ২০০ বিঘা জমি বরাদ্দ চেয়েছেন ময়লা ডাম্পিং করার জন্য। তাছারা ময়লা থেকে জৈবসার প্রস্তুত করার জন্য জাপানসহ কয়েকটি দেশের সাথে যোগাযোগ চলমান। প্রতিদিন তিন হাজার টন বর্জ্য তৈরি হচ্ছে। এসব বর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য উন্নত প্রযুক্তি এবং বিদেশিদের সহযোগিতা নেয়া হবে।

মেয়র বলেন, সিএস এবং আর এস পরিবর্তন করে নগরীতে ৮টি খালের পাশে যে জমি গুলো দখল করা হয়েছে তা উদ্ধার করে তার পাশ দিয়ে স্থায়ীভাবে হাটার রাস্তা করে দেয়া হবে। মেয়র বলেন, আগে মানুষ জেলখানায় বন্দি থাকতেন এখন আমরা রাস্তায় বন্দি থাকি। রাস্তার গতি বাড়ানোর জন্য রাস্তা প্রসস্থ করার সাথে সাথে সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে ২শত মিনি বাস রাস্তায় নামানোর পরিকল্পনা আছে তার। তাছারা সিটি এলাকায় নতুন রাস্তা নির্মাণের পাশাপাশি প্রশস্তকরণ ও বৃক্ষরোপণ করা হবে। তিনি বলেন, পৃথিবীর কোন শহরে এত সরু রাস্তা এবং এত আবর্জনা চোখে পড়েনা।

বেকারদের কর্মসংস্থানের বিষয়ে তিনি বলেন, যারা গাজীপুর সিটির নাগরিক এবং যারা বেকার রয়েছেন পর্যায়ক্রমে তাদের শতভাগ কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে।

জাহাঙ্গীর আলম মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার পর এ পর্যন্ত গাসিকে উল্লেখ করার মতো তেমন কোন উন্নয়ন কাজ চোখে পড়েনি। সেই অবস্থানে থেকে “জনতার মুখোমুখি” অনুষ্ঠানের মাধ্যমে কিছুটা হলেও মেয়র তার কর্মপরিকল্পনার বিষয়টি সাধারণদের কাছে পরিষ্কার করতে পেরেছেন বলে মনে করছেন সুশীল সমাজ। তবে এ ধরণের আয়োজনকে স্বাগত জানিয়েন তারা।