🕓 সংবাদ শিরোনাম

‘বাংলাদেশে সাংবাদিকতাকে তথ্য চুরি বলা হচ্ছে, এর চেয়ে দুঃখ আর নেই’ভারতকে আরও ৪ ট্রাক করোনার ওষুধ পাঠালো বাংলাদেশরোজিনা ইসলামের ঘটনা স্বাধীন সাংবাদিকতার টুঁটি চেপে ধরার শামিল: টিআইবিসাংবাদিক রোজিনা কারাগারেদুর্নীতি তুলে ধরাই কাল হয়েছে রোজিনার: মির্জা ফখরুলস্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অনলাইন ব্রিফিংও বয়কটচট্টগ্রামে আরও ৭০ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ৫কারাগারে বাড়তি নিরাপত্তায় বাবুল আক্তারসাংবাদিক রোজিনাকে হয়রানি ও হেনস্থার প্রতিবাদে রাঙামাটি প্রেসক্লাবের মানববন্ধনসাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে নির্যাতনের প্রতিবাদে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের মানববন্ধন

  • আজ মঙ্গলবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৮ মে, ২০২১ ৷

অস্ট্রেলিয়ার প্রথম গে ক্রিকেটার ফকনার!


❏ বুধবার, মে ১, ২০১৯ খেলা

স্পোর্টস্ আপডেট ডেস্ক :: অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটার জেমস ফকনারের একটি পোস্টকে ঘিরে জোর আলোচনা চলছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট মহলে। নিজের জন্মদিনে সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টগুলিতে একটি ছবি পোস্ট করেন অজি ক্রিকেটার। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, নিজের মা এবং এক ছেলে বন্ধুর সঙ্গে খাবার খাচ্ছেন ফকনার। এতদূর পর্যন্ত ঠিকই ছিল। কিন্তু গোল বাধে ছবির ক্যাপশনে। যাতে ফকনার লেখেন, 'মা এবং বয়ফ্রেন্ডের (শ্রেষ্ঠ সঙ্গী) সঙ্গে জন্মদিনের ডিনার।'

ওই বয়ফ্রেন্ড শব্দটি থাকার জন্যই গোটা অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট মহল ভেবে নেয় যে জেমস ফকনার সমকামী। এবং তিনিই অস্ট্রেলিয়ার প্রথম গে ক্রিকেটার। আর এই পোস্টের মাধ্যমে তিনি নিজের যৌন স্বত্ত্বা গোটা বিশ্বের সামনে তুলে ধরলেন। ফকনার পোস্ট করার সঙ্গে সঙ্গেই ক্রিকেট মহল তাঁকে শুভেচ্ছা জানাতে থাকে। ব্রেট লি, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, শন টেটদের মতো তারকারা ফকনারকে এই সাহসিকতার জন্য অভিনন্দনও জানিয়ে ফেলেন। অস্ট্রেলিয়ার সংবাদমাধ্যমেও খবর ছড়িয়ে পড়ে ফকনার সমকামী।

এরই মধ্যে ফকনার আরও একটি পোস্ট করেন। তিনি জানিয়ে দেন, তাঁকে নিয়ে যাবতীয় জল্পনা-কল্পনা সত্যি নয়। তিনি 'গে' নন। তবে, তাঁর এই পোস্টকে মানুষ যেভাবে স্বাগত জানাচ্ছেন, তা আশার বিষয়। মানুষ যেভাবে সমকামিতাকে সমর্থন করছে, তা তাঁকে অনুপ্রাণিত করছে।

কিন্তু ফকনারের এই পোস্ট ভালভাবে নেয়নি অস্ট্রেলিয়ার 'গে কমিউনিটি' বা সমকামী সম্প্রদায়। তারা বেশ বিরক্ত। একটি বিবৃতি দিয়ে গে কমিউনিটির পক্ষে জানানো হয়েছে, এমন মজা করার আগে ফকনারের ভাবা উচিত ছিল। বিশেষ করে 'বয়ফ্রেন্ড' শব্দটি লেখার আগে। 'বেস্ট মেট' শব্দটি আগেই লেখা যেত। এতে অনেক মানুষ বিরক্ত।' এ বিষয়ে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে গে কমিউনিটি।